| প্রচ্ছদ

ভারতের অর্থনীতি নিয়ে যা বললেন নোবেলজয়ী অভিজিৎ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪০ বার। প্রকাশ: ১৪ অক্টোবর ২০১৯ ।

‘এই মুহূর্তে ভারতের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি খুব ভাল নয়। বিভিন্ন রিপোর্টে অর্থনীতি সংক্রান্ত যে পরিসংখ্যান প্রকাশিত হচ্ছে, তাতে কোনোভাবেই আশ্বস্ত হতে পারছি না। কয়েকবছর আগেও আর্থিক বৃদ্ধির হার ভাল ছিল। এখন আর সেই আশাও দেখছি না।’  

ভারতের বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদমাধ্যমে এভাবেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ ব্যানার্জি। 

বৈশ্বিক দারিদ্র্য লাঘবে অবদান রাখায় অর্থনীতিতে অমর্ত্য সেনের পর দ্বিতীয় বাঙালি হিসেবে নোবেল পেয়েছেন তিনি। 

নোবেল জয়ের খবর পাওয়ার পর সংবাদমাধ্যমে অভিজিৎ ব্যানার্জি জানিয়েছেন, ‘খবর পেয়েই ঘুমিয়ে পড়েছিলাম। তারপর উঠে দেখি প্রচুর ফোন আসছে। বন্ধুবান্ধবরা ফোন করছেন। যদিও এখনও কারও সঙ্গে কথা হয়নি। মায়ের সঙ্গেও কথা বলে উঠতে পারিনি।’ খবর আজকালের

কবে থেকে গবেষণার কাজ করছেন জানতে চাইলে অভিজিৎ জানান, ১৯৯৫–৯৬ সাল থেকে আমি গবেষণা করছি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ২০ বছর ধরে এই গবেষণার কাজ করেছি। সাউথ আফ্রিকা, কেনিয়া, ইন্দোনেশিয়া, চীন, কানাডায় কাজ করেছি। পশ্চিমবঙ্গের অর্থনৈতিক পরিস্থিতিও গবেষণার কাজে যুক্ত করেছি। এই বাংলাতেই কেটেছে আমার ছেলেবেলা। এখানেই পড়াশোনা। মূলত বাংলার অর্থনৈতিক ইতিহাস আমায় গবেষণার কাজে অনেকটাই সাহায্য করেছে।’

গবেষণার বিষয় নিয়ে অভিজিৎ বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী দারিদ্র্য দূরীকরণ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা করছি। দারিদ্র্য কোনো সমস্যা নয়। এই সমস্যার অনেকগুলি স্তর রয়েছে। সমস্যাগুলিকে এক এক করে খুঁজে বের করা সমাধানের পথ কী হবে তা নির্ধারণ করা নিয়েই গবেষণা। পরীক্ষামূলক গবেষণার মাধ্যমেই দারিদ্র্য সমস্যার সমাধান সম্ভব।’ 

এ বছর অর্থনীতিতে অভিজিতের সঙ্গে নোবেল পেয়েছেন আরও দুইজন। তারা হলেন, অভিজিতের স্ত্রী এস্তার দুফলো এবং মার্কিন অর্থনীতিবিদ মাইকেল ক্রেমার।

মন্তব্য