| প্রচ্ছদ

মসজিদের মোয়াজ্জেম গ্রেফতার

শাজাহানপুরে ঝঁড়ফুক দিতে গিয়ে বলাৎকারের শিকার শিশু রাসেল

শাজাহানপুর (বগুড়া) সংবাদদাতা
পঠিত হয়েছে ১২৯ বার। প্রকাশ: ২০ অক্টোবর ২০১৯ ।

বগুড়ার শাজাহানপুরে মাথা ব্যাথার জন্য ঝাঁড়ফুক দিয়ে গিয়ে বলাৎকারের শিকার হয়েছে রাসেল নামের ১২ বছর বয়সী এক শিশু পুত্র। ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার শাকপালা এলাকায়। এ ঘটনায় ওই শিশুর বাবা শাজাহান আলী বাদি হয়ে শাজাহানপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।  
মামলা সূত্রে জানাগেছে, শনিবার সন্ধ্যার পূর্বমুহুর্তে শাকপালা উত্তরপাড়া বায়তুল আতিক জামে মসজিদে মাগরেবের নামাজ পড়তে যায় শিশু রাসেল। এরপর মাথা ব্যাথার জন্য সে ওই মসজিদের মোয়াজ্জেম আবু বক্কর সিদ্দিক (৩৮) কে ঝাঁড়ফুক দিতে অনুরোধ করে। মোয়াজ্জেম বলেন অপেক্ষা করো, নামজ শেষে ঝাঁড়ফুক দিয়ে দিব। কথামতো শিশু রাসেল নামাজ শেষে মসজিদে অপেক্ষা করছিল।

অপরদিকে মোয়াজ্জেম আবু বক্কর সিদ্দিক শিশু রাসেলকে অজুখানার মধ্যে নিয়ে যায় এবং মসজিদের সব লাইট বন্ধ করে দিয়ে শিশু রাসেলকে বলাৎকার করে। এ ঘটনা কাউকে বললে জ্বিন হাজির করে শাস্তি দেয়া হবে বলে শিশুটিকে ভয় দেখিয়ে তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় মোয়াজ্জেম আবু বক্কর সিদ্দিক। কিন্তু বাড়িতে গিয়ে শিশুটি তার মা’কে সব কিছু বলে দেয়।

এমতাবস্থায় মসজিদ কমিটি এবং সমাজের গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ মোয়াজ্জেমের কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি অপরাধের কথা স্বীকার করেন। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা শাজাহান আলী বাদী হয়ে শাজাহানপুর থানায় মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ আসামীকে গ্রেফতার করে রোববার আদালতে প্রেরণ করেছে। গ্রেফতারকৃত আবু বক্কর সিদ্দিক বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার নন্দনবাড়ি মধ্যপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেরে পুত্র বলে জানাগেছে। আসামী গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কৈগাড়ী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ হরিদাস মন্ডল জানিয়েছেন, ইতোমধ্যে ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন করা হয়েছে। 
 

মন্তব্য