| প্রচ্ছদ

সোনামসজিদ দিয়ে ২৯০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৮ বার। প্রকাশ: ২২ অক্টোবর ২০১৯ ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দরে গত ৮ দিনে ভারতের মহদীপুর স্থলবন্দর থেকে ১৮০টি পেঁয়াজভর্তি ট্রাক প্রবেশ করেছে। এতে মোট ২ হাজার ৯০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ ভারত থেকে বন্দরে প্রবেশ করেছে বলে সোনামসজিদ সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী কমিটির সদস্য বাবুল হাসনাত দুরুল জানান। খবর যুগান্তর অনলাইন 

তিনি জানান, গত ২ দিন থেকে আমদানিকৃত পিঁয়াজ দ্রুত ছাড়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পানামা পোর্ট লিমিটেড থেকেও উক্ত পেঁয়াজভর্তি ট্রাকগুলো জরুরিভিত্তিতে আনলোড করা হচ্ছে।

বাবুল হাসনাত দুরুল জানান, গত ২৮ সেপ্টেম্বরের আগে এলসি করা পেঁয়াজ ভারত থেকে আগামী ২৮ তারিখের মধ্যে সোনামসজিদ স্থলবন্দরে প্রবেশ করবে। ইতিমধ্যেই এলসি করা আটকেপড়া পেঁয়াজ গত ৮ দিনে সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে প্রায় ২ হাজার ৯০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। কিন্তু বাজারে পেঁয়াজের দাম আগের মতোই।

মঙ্গলবার শিবগঞ্জের পেঁয়াজের ব্যবসায়ী আবদুল ওহাবসহ কয়েকজন ব্যবসায়ীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান, বাজারে পেঁয়াজের সরবরাহ কম থাকায় পেঁয়াজের দাম বেশি। তবে গত ২ দিন থেকে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পায়নি। বর্তমানে বিভিন্ন বাজারে দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৯০ টাকা, প্রতি কেজি ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬৫-৭০ টাকায়।

উল্লেখ্য, গত রোববার মহদীপুর স্থলবন্দর থেকে ২৩টি, সোমবার ৩১টি, মঙ্গলবার ২৯টি ও বুধবার ৩০টি, বৃহস্পতিবার ২৫টি, শনিবার ২৫টি, রোববার ৯টি ও গত সোমবার ৭টি পেঁয়াজের ট্রাক সোনামসজিদ বন্দরে প্রবেশ করেছে বলে পানামা পোর্ট লিমিটেড সূত্রে জানা গেছে।

মহদীপুর স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোশিয়েশনের ভুগতি মণ্ডল জানান, ২৯ সেপ্টেম্বরের পেঁয়াজ রফতানির ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞার পূর্বে যে সমস্ত এলসি করা পেঁয়াজ আটকা পড়েছিল তা পর্যায়ক্রমে আগামী ২৮ অক্টোবরের মধ্যে রফতানি করা হচ্ছে।

মন্তব্য