| প্রচ্ছদ

আদমদীঘির অপহৃত কলেজ ছাত্রী ৩৩ দিন পর নারায়নগঞ্জ থেকে উদ্ধারঃ গ্রেফতার ১

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৫৮ বার। প্রকাশ: ২৩ অক্টোবর ২০১৯ ।

বগুড়ার আদমদীঘির চাঁপাপুর জালাল উদ্দীন কলেজের অপহৃত ছাত্রী রঞ্জনা বালা (১৫) অপহরনের ৩৩দিন পর গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় পুলিশ নারায়নগঞ্জ এলাকা থেকে উদ্ধার ও রাসেল নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। রাসেল আদমদীঘির চাঁপাপুর ইউপির মাতাপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে। 
জানা গেছে, আদমদীঘি উপজেলার চাঁপাপুর জালাল উদ্দীন কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্রী ভেনলা গ্রামের বিদুৎ চন্দ্র বর্মনের মেয়ে রঞ্জনা বালাকে রাসেল কলেজে আসা যাওয়ার পথে উত্যক্তসহ কু-প্রস্তাব দিত। বিষয়টি রাসেলের পরিবারকে জানালে রাসেল ক্ষিপ্ত হয়ে গত ১৯ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টায় রঞ্জনা বালা বাড়ি থেকে কলেজের উদ্যেশ্যে যাবার পথে গ্রামের সন্নিকটে তেবারিয়া নামক স্থানে রঞ্জনা বালার পথরোধ করে। এরপর রাসেল ও তার সহযোগীরা রঞ্জনা বালাকে জোড়পূর্বক একটি মাইক্রোতে উঠিয়ে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় গত ১৩ অক্টোবর রাতে কলেজ ছাত্রী রঞ্জনা বালার বাবা বাদি হয়ে আদমদীঘি থানায় রাসেল তার ভগ্নিপতিসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে একটি অপহরন মামলা করে।

এদিকে মামলা দায়েরের পর আদমদীঘি-দুপচাঁচিয়া সাকেলের সিনিয়র এএসপি কেএইচএম এরশাদ মোবাইল ফোন টেকিংয়ের মাধ্যমে কৌশলে রাসেলের অবস্থান নির্ধারন করে মামলার তদন্তকারি উপ-পরিদর্শক মহাদেব সরকার  বুধবার সন্ধ্যায় নারায়নগঞ্জের একটি বাসা থেকে অপহৃত ছাত্রী রঞ্জনাকে উদ্ধার করে। এসময় রাসেল নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেন। আদমদীঘি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জালাল উদ্দীন ভিকটিম উদ্ধারসহ আসামী গ্রেফতার নিশ্চিত করেন।
 

মন্তব্য