| প্রচ্ছদ

নাম ভুল করায় আদালতের সমন ফিরিয়ে দিলেন ইলিয়াস কাঞ্চন

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৪ বার। প্রকাশ: ২৪ অক্টোবর ২০১৯ ।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন আগামীকাল ২৫ অক্টোবর। নির্বাচন নিয়ে শুরু থেকেই চলছিল শোরগোল। সেই শোরগোলে নির্বাচন বন্ধের নোটিশও এল এফডিসিতে। নির্বাচনের ঠিক আগের দিন ২৪ অক্টোবর বিকেলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন বরাবর নির্বাচন বন্ধে উচ্চ আদালতের সমন পাঠানো হয়। কিন্তু ইলিয়াস কাঞ্চন নির্বাচন বন্ধের জন্য পাঠানো উচ্চ আদালতের সমন ফিরিয়ে দিয়েছেন। ইলিয়াস কাঞ্চন আদালতের প্রতিনিধি পেশকার এসএম শফিউর রহমানকে বলেন, ‘নোটিশে যে ব্যক্তির নাম লেখা রয়েছে সে ব্যক্তি আমি নই। মূলত নোটিশে ইলিয়াস কাঞ্চনের নাম ভুল থাকায় নোটিশটি তিনি গ্রহণ করেননি।

উপস্থিত সাংবাদিকদের ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘আমি প্রধান নির্বাচন কমিশনার এটা ঠিক। কিন্তু ভুল নামে আসা নোটিশ তো আমি নিতে পারি না।’

প্রধান নির্বাচন কমিশনারের পদবি ও ঠিকানা ঠিক আছে। তাহলে গ্রহণ করতে কী অসুবিধা? পেশকারের এই প্রশ্নে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘আমি তর্কে যাব না। এটা আইনের ব্যাপার। নাম ঠিক হয়ে আসলে আমি এটা অবশ্যই গ্রহণ করব।’

প্রসঙ্গত প্রধান নির্বাচন কমিশনারের নাম ইলিয়াস কাঞ্চন। কিন্তু নোটিশে নামের আগে মোহম্মদ থাকায় তিনি এই নোটিশটি গ্রহণ করেননি।

আদালতের প্রতিনিধিরা জানায়, শিল্পী সমিতির নির্বাচনের আগে কিছু শিল্পীর নাম তালিকা থেকে বাদ পড়ায় ১৫ অক্টোবর প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন বরাবর নির্বাচন কেন স্থগিত করা হবে না এই মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছিল।

অভিনেতা মো. সোহেল খান ও মোহাম্মদ হোসাইন লিটনের পক্ষে তাদের আইনজীবী অ্যাডভোকেট গোলাম মোহাম্মদ সাইফুর রহমান এই নোটিশ পাঠান। নোটিশ গ্রহণ করেননি তিন বিবাদী প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন, শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর এবং সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান।

নোটিশ গ্রহণ না করায় আজ উচ্চ আদালত থেকে এই তিন বিবাদীর নামে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য সমন জারি হয়। সমন নিয়ে আসেন উচ্চ আদালতের পেশকার এস এম শফিউর রহমান।

এদিকে পেশকার শফিউর রহমান দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘প্রদান নির্বাচন কমিশনার সহ তিন বিবাদীর কেউই সমন নোটিশটি গ্রহণ করেনি।’

নোটিশ গ্রহণ না করায় আদালতের পরবর্তী পদক্ষেপ কি হবে জানতে চাইলে পেশকার দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘আমরা আদালতকে জানাব নোটিশ গ্রহণ করা হয়নি। তারপর আদালত তার বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।’

এর আগে ৩ অক্টোবর, অন্যায়ভাবে সদস্য পদ বাতিল করার অভিযোগ এনে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি বরাবর উকিল নোটিশ পাঠান ফাইট ডিরেক্টর মো. শেখ শামীম। সেই নোটিশও পাননি বলে জানিয়েছে শিল্পী সমিতি।

এদিকে নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন দেশ রূপান্তরকে জানিয়েছেন, আগামীকাল যথারীতি নির্দিষ্ট সময়ে শিল্পী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৯ টায় শুরু হয়ে নির্বাচন শেষ হবে বিকেল ৫টায়।

মন্তব্য