| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে হত্যাঃ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী যতনের

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ৯০ বার। প্রকাশ: ২৬ অক্টোবর ২০১৯ ।

বগুড়ার কাহালুতে পায়ুপথে বাতাস প্রবেশ করিয়ে শিশুশ্রমিক আলাল হোসেনকে হত্যার ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে আরেক শ্রমিক যতন কুমার দেবনাথ। শনিবার বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে যতন আলালকে হত্যার দায় স্বীকার করেছে।

শুক্রবার দুপুরে কাহালুর মুরইল এলাকার আফরিন পাটকলে এই হত্যার ঘটনা ঘটে। আলাল (১২) ও যতন (১৫) দুজনই আফরিন পাটকলে পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে কাজ করতো। আলালকে হত্যার ঘটনায় শুক্রবার গভীর রাতে কাহালু থানায় মামলা করেন তার বাবা উপজেলার ঢাকন্তা এলাকার মোজাহার হোসেন। শনিবার বিকেলে ওই মামলায় যতন কুমার দেবনাথকে হাজির করা হয় বগুড়ার আদালতে। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাহালু থানার উপ-পরিদর্শক মুকুল চন্দ্র বর্মন জানান, পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে যতন জানিয়েছে, শুক্রবার দুপুরে পাটকলে কাজ করার সময় আলালের সঙ্গে তার ঝগড়া বাধে। একপর্যায়ে আলাল তাকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দিলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে হাতের কাছে থাকা কারখানা পরিস্কারের হাওয়া মেশিন দিয়ে আলালের পায়ুপথে তীব্রগতির বাতাস প্রবেশ করায়।

শনিবারে বিকালে আদালতে হাজির করার পর যতন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক বেগম সুপ্রিয়া রহমানের কাছে এই হত্যাকান্ডের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

তিনি আরো জানান, যতনকে আপাতত বগুড়া কারাগারে রাখা হবে। তার বয়স কম হওয়ায় রোববার তাকে শিশু আদালতে হাজির করার পর তাকে কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাবেন আদালত।

মন্তব্য