| প্রচ্ছদ

শিশুকে রাতভর ধর্ষণ, বাড়ির পাশে ফেলে গেল ধর্ষক

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫৫ বার। প্রকাশ: ২৭ অক্টোবর ২০১৯ ।

গভীর রাতে একা ব্যক্তিগত কাজে ঘরের বাইরে এসেছিল পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে মুখ চেপে ধরে স্কুলছাত্রীকে বাড়ির বাইরে নিয়ে যায় দুই বন্ধু। প্রায় ৬ ঘণ্টা এক বন্ধুর পাহারায় স্কুলছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে আরেক বন্ধু। ভোরবেলা স্কুলছাত্রীকে মুমূর্ষু অবস্থায় বাড়ির পাশে ফেলে পালিয়ে যায় ধর্ষকরা।

এমনই ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটেছে ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলার রুহিয়া থানা এলাকার কানিকশালগাঁও গ্রামে। এ ঘটনায় স্কুল ছাত্রীর বাবা ধর্ষক ও সহযোগীর বন্ধুর বিরুদ্ধে রুহিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযুক্ত ধর্ষক সদর উপজেলার রুহিয়া থানার কানিকশালগাঁও গ্রামের হামিদুল ইসলামের ছেলে জাহিদুল ইসলাম (১৮) ও তার সহযোগী একই গ্রামের ইন্তাজুল হকের ছেলে রাশেদ (১৮)। 

মামলার বরাত দিয়ে রুহিয়া থানার ওসি চিত্ত রঞ্জন রায় জানান, মেয়েটির বাবা দিনমজুর। স্কুলছাত্রীটি স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। বিকাল বেলা তার পরিবারের লোকজন স্কুলছাত্রীকে থানায় নিয়ে আসলে মেয়েটির মুখে ঘটনা শোনার পর ধর্ষক ও তার সহযোগী বন্ধুর বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

এর আগে ভোরবেলা স্কুলছাত্রীকে ধর্ষকের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে সমাধানের চেষ্টা চালায় স্থানীয় মোড়লরা। এতে মেয়েটি সেখানেও মারধরের শিকার হয়েছেন বলে তারা অভিযোগ করেছেন। মেয়েটি বর্তমানে পুলিশি হেফাজতে রুহিয়া থানায় রয়েছে। 

মন্তব্য