| প্রচ্ছদ

মালয়েশিয়ার জামাই হয়েছেন বাংলাদেশী যুবক

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৯ বার। প্রকাশ: ২৮ অক্টোবর ২০১৯ ।

মালয়েশিয়ার জামাই হয়েছেন সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার যুবক আবদুল হামিদ জামিল। সে উপজেলার দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের মুনিরজ্ঞাতি গ্রামের মুফতি মাওলানা মনোয়ার আলী ও মোছা. হামিদা খাতুনের পুত্র।

রোববার বিকালে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের চেরাসস্থ একটি কনভেনশন হলে উৎসবমুখর পরিবেশে মালয়েশিয়ান তরুণী নূর আতিকা বিনতে বাহারকে বিয়ে করেছেন তিনি।

নূর আতিকা বিনতে বাহার মালয়েশিয়ার চেরাস শহরের বারেক ভুনতা বাহার উদ্দিন ও রসলিনা বিনতে রাজিনের কন্যা।

এশিয়ার অত্যন্ত সমৃদ্ধশালী দেশ মালয়েশিয়া। এ দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। বিশেষ করে মালয়েশিয়ার উৎপাদন ও নির্মাণ শিল্পে বাঙালিদের ভূমিকা খোদ মালয়েশিয়ার সরকারও স্বীকার করে।

পাশাপাশি দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশিদের রয়েছে অনেক আত্মীয়তার সম্পর্ক। শত শত বাঙালির ব্যবহার, আচার-আচরণে মুগ্ধ হয়ে মালয় মেয়েরা তাদের বিয়ে করছেন।

মালয়েশিয়ান কঠিন শর্ত মেনে নিয়ে উভয়পক্ষের যৌথ সম্মতিতে গত রোববার নূর আতিকা বিনতে বাহারের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন আবদুল হামিদ জামিল।

জানা গেছে, প্রায় চার বছর আগে একে অপরের সঙ্গে পরিচয় হয় তাদের। প্রথম দেখাতেই একে অপরকে ভালো লাগে। তার পর থেকেই চলে দু'জনের বন্ধুত্ব। রোববার তাদের বিবাহের মধ্য দিয়ে যুগল জীবনে পদার্পণ করলেন এই তরুণ-তরুণী।

মন্তব্য