| প্রচ্ছদ

রিমান্ড শেষে কাউন্সিলর মিজান কারাগারে

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৬ বার। প্রকাশ: ২৯ অক্টোবর ২০১৯ ।

ঢাকা উত্তরের ৩২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিজানের (পাগলা মিজান) শ্রীমঙ্গল থানায় ৫ দিন রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ শেষ হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মৌলভীবাজার আদালতে পাঠালে আদালত তাকে ফের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। খবর সমকাল অনলাইন 

শ্রীমঙ্গল থানার ওসি আব্দুছ সালেক জানান, কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান মিজান ওরফে পাগলা মিজান একজন মারাত্মক ধরণের ধূর্ত মানুষ। জিজ্ঞাসাবাদে তেমন কোন তথ্য উদ্ধার করা যায়নি। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র কার কাছ থেকে কিভাবে পেয়েছে সে সম্পর্কে সঠিক কোন তথ্য দেননি। কার শেল্টারে তার বেড়ে ওঠা এ সম্পর্কে সুস্পষ্ট করে কিছু বলেননি। 

তিনি আরও জানান, তার কাছ থেকে উদ্ধারকৃত তথ্য মামলার তদন্তের স্বার্থেই এই মুহূর্তে প্রকাশ করা যাবে না। ঢাকার আদালতে তার বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা রয়েছে। সে মামলা সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করে মিজান সম্পর্কে পরবর্তী করণীয় ঠিক করা হবে।

মৌলভীবাজার কোর্ট ইন্সপেক্টর আব্দুল হাই চৌধুরী জানান, অস্ত্র মামলার আসামি পাগলা মিজানের পক্ষে কেউ জামিন আবেদন করেনি। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তাও ফের রিমান্ড আবেদন করেননি। ফলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, শুদ্ধি অভিযানের অংশ হিসেবে গত ১১ অক্টোবর ভোরে কাউন্সিলর পাগলা মিজানকে র‌্যাব ঢাকার একটি টিম শ্রীমঙ্গলের গুহ রোডের একটি বাসা থেকে গ্রেফতার করে। এ সময় তার কাছ থেকে নগদ দুই লাখ টাকা ও একটি লাইসেন্সবিহীন বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। অবৈধ অস্ত্র রাখার অভিযোগে শ্রীমঙ্গল থানায় গত ১২ অক্টোবর তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন র‌্যাব শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের ওয়ারেন্ট অফিসার আব্দুল জব্বার। এই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মৌলভীবাজার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ২নং আমলি আদালতে আসমিকে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করেন। পরে আদালত তার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মন্তব্য