| প্রচ্ছদ

অস্ত্র ও মাদকসহ কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জু গ্রেপ্তার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৯ বার। প্রকাশ: ৩১ অক্টোবর ২০১৯ ।

অস্ত্র ও মাদকসহ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৩৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জুকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

রাজধানীর টিকাটুলিতে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে র‌্যাব-৩ এর একটি দল মঞ্জুর কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে।  

বিষয়টি নিশ্চিত করে র‌্যাব-৩ এর অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল শাফিউল্লাহ বুলবুল জানান, কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জুর বিরুদ্ধে একটি চাঁদাবাজি মামলা হয়েছে। চাঁদাবাজির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তার কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। খবর দেশ রুপান্তর  অনলাইন

 অনুসন্ধানে জানা গেছে, ডিএসসিসির ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জুর রাজধানী সুপার মার্কেট ও নিউ রাজধানী সুপার মার্কেট থেকেই মাসে কোটি টাকার বেশি আয়। রাজনৈতিক প্রভাব খাঁটিয়ে ২০১১ সাল থেকে টানা আট বছর মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের আওতাধীন টিকাটুলির এই মার্কেটের ‘স্বঘোষিত’ সভাপতি তিনি। তার নামে দুই মার্কেটের ১৭৮৮ দোকান থেকে প্রতি মাসে ৯৫০ টাকা করে আদায় করা হয়। এর বাইরে ঈদে বা পূজায় দিতে হয় বাড়তি টাকা। জেনারেটর, বেয়ারসহ অন্যান্য খরচের নামেও দিতে হয় চাঁদা। তার বেপরোয়া চাঁদাবাজি ও দখলবাজির বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পুলিশ ও র‌্যাব সদর দপ্তরসহ বিভিন্ন স্থানে বছরের পর বছর অভিযোগ ও মামলা করেও কোনো লাভ হয়নি। মঞ্জু ও তার বাহিনী এতটাই বেপরোয়া যে, সেখানে মঞ্জুর কথাই যেন আইন। তার কথার অবাধ্য হলেই ক্যাডার বাহিনী দিয়ে ধরে নিয়ে টর্চারসেলে নির্যাতন করা হয়। চাঁদাবাজির সময় হাতেনাতে কয়েক দফায় তার লোকজন গ্রেপ্তারও হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকেও মার্কেটে চাঁদাবাজি বন্ধে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু চাঁদাবাজি বন্ধ হয়নি।

মন্তব্য