| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় ঠিকাদারদের মানববন্ধন

সওজে টেন্ডারের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত এলটিএম পদ্ধতি চালুর দাবি

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ৬২ বার। প্রকাশ: ০৪ নভেম্বর ২০১৯ ।

সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের ন্যুনতম ৩ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত লিমিটেড টেন্ডারিং মেথড বা এলটিএম পদ্ধতি চালুর দাবিতে সোমবার বগুড়ায় ওই দপ্তরের ঠিকাদাররা মানববন্ধন করেছেন। বগুড়া সড়ক ও জনপথ বিভাগ ঠিকাদার কল্যাণ সমিতির ব্যানারে শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথায় অনুষ্ঠিত ওই মানববন্ধন থেকে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত নীতিমালা (পিপিআর) সংশোধনেরও দাবি জানানো হয়। 
বেলা সাড়ে ১১টা থেকে ঘন্টাব্যাপী ওই মানবন্ধনে বিপুল সংখ্যক ঠিকাদার অংশ নেন। তাদের দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে গৃহ নির্মাণ শ্রমিক পরিষদের স্থানীয় নেতৃবৃন্দও ওই মানববন্ধনে অংশ নেন। পরে ঠিকাদারদের দাবি সম্বলিত একটি স্মারকলিপি ডাকযোগে প্রধানমন্ত্রী বরাবর পাঠানো হয়।
মানববন্ধনে অংশ নেওয়া ঠিকাদাররা জানান, ২০১২ সালে ই-টেন্ডার চালুর পর সিপিটিইউয়ের কিছু সংখ্যক কর্মকর্তা ও প্রকৌশলী সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত বিধিমালা (পিপিআর) এমনভাবে সংশোধন করেছেন যাতে সওজের সকল কাজ গুটিকয়েক বড় ঠিকাদারের হাতে চলে গেছে। সেই সুযোগে হাতে গোনা ওইসব ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রকল্পগুলো বাগিয়ে নিচ্ছে এবং নিজেরা কাজ না করে কমিশনের মাধ্যমে সাব ঠিকাদারের মাধ্যমে কাজ করাচ্ছেন। এতে উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর গুনগত মান নষ্ট হচ্ছে এবং তার ফলে সওজ এবং সরকারের ভাবমূর্তিও ক্ষুন্ন হচ্ছে। তাছাড়া গুটি কয়েক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে এভাবে সব কাজ দিয়ে দেওয়ায় বগুড়াসহ সারাদেশে সওজের প্রায় ৭ হাজার ঠিকাদার কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। তারা পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। বক্তারা বেকার হয়ে পড়া এসব ঠিকাদারদেরকে পুনরায় তাদের পেশায় ফিরিয়ে আনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
পরে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে দেওয়া স্মারকলিপিতে ছোট ছোট ঠিকাদারদের স্বার্থ সংরক্ষণের জন্য টেন্ডারের ক্ষেত্রে ৫ শতাংশ নিম্নদর গ্রহণের সুযোগ রাখার পাশাপাশি বড় বড় প্রকল্পের ক্ষেত্রে আলাদা আলাদা টেন্ডার আহবান এবং ন্যুনতম ৩ কোটি টাকার কাজের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত এলটিএম পদ্ধতি প্রবর্তনের দাবি জানানো হয়।
মানববন্ধন চলাকালে বক্তৃতা করেন, বগুড়া সড়ক ও জনপথ বিভাগ ঠিকাদার কল্যাণ সমিতির আহবায়ক মোঃ আছালত জামান, যুগ্ম আহবায়ক গোলাম রব্বানী সেতার, আব্দুর রহমান বাদল, অ্যাডভোকেট ইমদাদুল হক এমদাদ, কামরুল আলম রিপু, সাইদুর রহমান তারা, নুরুল ইসলাম লাল্টু, শেখ রানা, ফয়সাল আক্তার জনি, আসাদুল হক কাজল ও বগুড়া গৃহনির্মাণ শ্রমিক পরিষদের সভাপতি আলমগীর হোসেন আলম।

মন্তব্য