| প্রচ্ছদ

জলবায়ু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া শুরু আমেরিকার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৮ বার। প্রকাশ: ০৫ নভেম্বর ২০১৯ ।

প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার চূড়ান্ত আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মঙ্গলবার টুইটে এই খবর দিয়েছেন।

২০১৭ সালে হোয়াইট হাউজে দেয়া এক ঘোষণায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছিলেন, তিনি প্যারিস চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নাম প্রত্যাহার করবেন। ওই বছর আগস্টে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতিসংঘকে বিষয়টি জানানো হয়। খবর দেশ রুপান্তর অনলাইন 

নির্বাচনের আগে থেকেই জলবায়ু পরিবর্তনের ইস্যুতে সর্বজনগ্রাহ্য তত্ত্বটি নিয়ে নিজের সন্দেহের কথা নানাভাবে বলে আসছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দুই বছর আগে তিনি যখন প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসার ঘোষণা দেন, তখন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বেশ নিন্দিত হন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের যুক্তি, এই চুক্তি যুক্তরাষ্ট্রকে ‘শাস্তি’ দিচ্ছে এবং লাখ লাখ মানুষকে চাকরিচ্যুত করছে।

চুক্তি অনুযায়ী কোনো সদস্য দেশ ২০১৯ সালের ৪ নভেম্বরের আগে প্যারিস জলবায়ু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাবার আনুষ্ঠানিকতা শুরু করতে পারত না। এই সময় পার হতেই ট্রাম্প কাজ শুরু করে দিয়েছেন।

টুইটে লিখেছেন, ‘প্যারিস চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া আজ আমরা শুরু করলাম। বিশ্বনেতা হিসেবে আমেরিকা গর্বিত। বাড়তি খরচ কমিয়ে নিজেদের অর্থনীতি শক্তিশালী করতে, আমাদের নাগরিকদের কথা ভেবে এসব করছি।’

ট্রাম্প কাজ শুরু করলেও আমেরিকা সত্যি সত্যি বের হতে পারবে কি না, সেটি জানতে আরও এক বছর অপেক্ষা করতে হবে। সব প্রক্রিয়া শেষ হতে হতে ২০২০ সালের শেষভাগ চলে আসবে। ততদিনে দেশটিতে আরেকটি প্রেসিডেন্ট নির্বাচন শেষ হওয়ার কথা।

তখন ট্রাম্প বাদে নতুন কোনো ব্যক্তি দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে, তিনি এই চুক্তিতে পুনরায় যুক্ত হবার সিদ্ধান্ত নিলেও নিতে পারেন।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর জানাচ্ছে, তারা সব নিয়ম মেনে এই চুক্তি থেকে বের হবে।

মন্তব্য