| প্রচ্ছদ

নারায়ণগঞ্জে ভবনধসের ৪৬ ঘণ্টা পর নিখোঁজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৬ বার। প্রকাশ: ০৫ নভেম্বর ২০১৯ ।

নারায়ণগঞ্জ নগরীর এক নম্বর বাবুরাইলে চারতলা ভবনধসের ৪৬ ঘণ্টা পর চাপাপড়া ওয়াজিদ (১২) নামে এক স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ২টার দিকে লাশটি উদ্ধার করেন দমকল বাহিনীর উদ্ধারকর্মীরা। খবর যুগান্তর অনলাইন 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সহকারী উপপরিচালক আবদুল্লাহ আল আরেফিন।

৩ নভেম্বর বিকাল সোয়া ৪টায় ফতুল্লা থানার এক নম্বর বাবুরাইলের শেষ মাথায় মুন্সিবাড়ী এলাকার এইচএম ম্যানশন নামে চারতলা ভবনটি ধসে পড়ে। এ ঘটনায় শোয়েব নামে এক স্কুলছাত্র নিহত ও তিনজন আহত হয়।

ঘটনার সময় ভবনের ভেতরেই ছিল ওয়াজিদ। সে ওই ভবনের নিচতলায় আরবি পড়তে গিয়েছিল। ধসেপড়ার সময় ওই ভবনে ওয়াজেদের সঙ্গে পড়ছিল আরেক শিশু স্বপ্না।

স্বপ্না জানায়, প্রতিদিনের মতো রোববার বিকালে ওই ভবনে শিক্ষক সোনিয়া বেগমের কাছে তার সঙ্গে ওয়াজেদ ও শোয়েব আরবি পড়ছিল।

তখন হঠাৎ শিক্ষক তাদের বলেন, ভবনটি কাঁপছে। এ কথা শোনার পর পরই তারা তিনজন পড়া রেখে উঠে দাঁড়ায়। এর পর কিছু বুঝে ওঠার আগেই ভবনটি বিকট শব্দে ধসে পড়ে। তারা পানিতে তলিয়ে যায়।

পরে অন্যরা কোনোমতে পানি থেকে ওপরে উঠতে পারলেও ওয়াজেদ পারেনি। স্বপ্নাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

প্রায় দুই ঘণ্টা চিকিৎসার পর সে সুস্থ হয়ে ওঠে। পরে স্বজনরা তাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। সেখান থেকে রাত ১০টায় দমকল বাহিনীর কর্মীরা তাকে ঘটনাস্থলে নিয়ে আসে। স্বপ্না ফায়ার সার্ভিসকে আরবি পড়ার রুমটি দেখিয়ে দেয়।

স্বপ্নার দেখানো তথ্যমতে উদ্ধারকাজ চালায় দমকল বাহিনীর উদ্ধারকর্মীরা। ঘটনার ৪৬ ঘণ্টা পর নিখোঁজ ওয়াজিদের লাশ উদ্ধার করেন তারা।

মন্তব্য