| প্রচ্ছদ

ঘুষ নেয়ার সময় দুদকের ফাঁদে সার্ভেয়ার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৯৮ বার। প্রকাশ: ০৫ নভেম্বর ২০১৯ ।

দিনাজপুর জেলা পরিষদের সার্ভেয়ার মো. আল আমিন ইসলামকে ঘুষের টাকাসহ হাতেনাতে আটক করেছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দিনাজপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সদস্যরা।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে দিনাজপুর জেলা পরিষদ হতে তাকে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ঘুষের ২০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

ঘুষের টাকাসহ জেলা পরিষদের সার্ভেয়ারকে আটকের বিষয়টি দেশ রূপান্তরকে নিশ্চিত করেছেন দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান।

তিনি জানান, বড়ইল গ্রামের মো. সাইফুদ্দিন ইসলামের স্ত্রী মোছা. শাবানা খাতুন সদরের বাঙ্গীবেচা মৌজায় ৯ শতক জমি লিজ প্রদানের জন্য জেলা পরিষদে আবেদন করেন। পরে জেলা পরিষদ থেকে শাবানা খাতুনকে জমির লিজ প্রদান করলেও সার্ভেয়ার মো. আল আমিন ইসলাম ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন।

সার্ভেয়ারের ঘুষ দাবির প্রেক্ষিতে শাবানা খাতুন বিষয়টি জানিয়ে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে অভিযোগ করেন। পরে দুদকের পরামর্শে অভিযোগকারী শাবানা খাতুন মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে জেলা পরিষদ অফিসের সামনের চায়ের দোকানে সার্ভেয়ার মো. আল আমিন ইসলামের হাতে ঘুষ হিসেবে ২০ হাজার টাকা তুলে দেন। পুরো ঘটনাটি দুদক সদস্যরা দূর থেকে চাক্ষুষ করেন। পরে সার্ভেয়ার আল আমিন জেলা পরিষদ অফিসে ঢোকা মাত্র দুদক সদস্যরা ঘুষের টাকাসহ তাকে হাতেনাতে আটক করেন।

এ ব্যাপারে দুদক আইনে সার্ভেয়ার আল আমিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে দুদক কর্তৃপক্ষ জানায়।

মন্তব্য