| প্রচ্ছদ

কোহলির চিন্তায় শিশিরও

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৫ বার। প্রকাশ: ২১ নভেম্বর ২০১৯ ।

অপেক্ষার পালা শেষ। এবার কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে দিবারাত্রির টেস্ট মাঠে গড়ানোর পাশা। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় বেলা দেড়টায় মাঠে গড়াবে সফরকারী বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি। গোলাপি বলে দুই দলের জন্যই প্রথম ম্যাচ এটি।

প্রথম অভিজ্ঞতা হবে রোমাঞ্চের সঙ্গে দুই দলেই রয়েছে কিছু শঙ্কা। গোলাপি বলে ফিল্ডিংকে অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং মনে হচ্ছে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির কাছে। একই সঙ্গে ভারত অধিনায়ককে চিন্তায় ফেলেছে সন্ধ্যার শিশিরও।

ডিউ ফ্যাক্টর অর্থাৎ শিশিরের কথা চিন্তা করে আগেই ইডেন টেস্ট শুরুর সময় আধ ঘণ্টা এগিয়ে আনার সিদ্ধান্ত হয়। এরপরও রাতের বেশ খানিটা সময় শিশিরের বড় প্রভাব দেখছেন ভারত অধিনায়ক।

বৃহস্পতিবার ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে কোহলি বললেন সেই কথাই, ‘ভারতে গোলাপি বলের চ্যালেঞ্জ একটাই, সেটি হল শিশির। শিশির এমন একটা বিষয়, যা আগে থেকে আঁচ করা যায় না। সময় অনুযায়ী শুধু খেলতে হয়।’

তবে চ্যালেঞ্জ থাকলেও তা মোকাবিলা করতে প্রস্তুত কোহলির দল, ‘মাঠে খুব দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হবে। ক্যাচ নেওয়ার ক্ষেত্রেও ঠিক তাই। অতিরিক্ত এজের কারণে বল খুব দ্রুত মুভ করবে। নতুন চ্যালেঞ্জের জন্য আমরা প্রস্তুত।’

বৃহস্পতিবার অনুশীলন সেশনে ভারত অধিনায়ক বেশ খানিক ফিল্ডিং অনুশীলন করেছেন। সেই অভিজ্ঞতা থেকে বললেন, ‘গোলাপি বলে ফিল্ডিং সেশনটাই সবচেয়ে চ্যালেঞ্জের হয়ে থাকল। দর্শকেরা সম্ভবত বুঝতে পারবেন না ফিল্ডিং করা কতটা কঠিন। অন্যান্য বলের তুলনায় গোলাপি বল একটু বেশিই ভারী। কোনো সন্দেহ নেই, বলের ওজন একই। তবে হাতে নিলে মনে হচ্ছে সামান্য ভারী।’

গোলাপি বল নিয়ে আরো কিছু চ্যালেঞ্জ দেখছেন কোহলি, ‘লাল বলের ক্ষেত্রে দুরন্ত টেকনিকের পাশাপাশি কমপ্যাক্ট খেলা প্রয়োজন। তবে গোলাপি বলে এর সঙ্গে যোগ হয় বলের রঙের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা। দৃশ্যমান অনেক ক্ষেত্রেই সমস্যা তৈরি করতে পারে।’

ইন্দোরে সিরিজের প্রথম টেস্টে বাংলাদেশকে ইনিংস ও ১৩০ রানে হারিয়েছিল ভারত। সিরিজ বাঁচতে বাংলাদেশকে জিততেই হবে এ ম্যাচে। অন্যদিকে ম্যাচ ড্র হলেই সিরিজ নিজেদের হবে ভারতের।

মন্তব্য