| প্রচ্ছদ

আমার স্ত্রী সুখে থাকলে আমি সুখে থাকব: ধোনি

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৯৪ বার। প্রকাশ: ২৭ নভেম্বর ২০১৯ ।

শুধু মাঠেই নয়। মহেন্দ্র সিং ধোনি ক্রিকেটের বাইরে একজন আদর্শ স্বামীও, যিনি স্ত্রীর সুখের মাঝে খুঁজেন নিজের সুখ। এক অনুষ্ঠানে বিবাহিত জীবন প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে এমনটাই জানালেন ভারতকে বিশ্বকাপ জেতানো সাবেক এই অধিনায়ক।

ধোনির দাবি, তিনি একজন ভালো স্বামী। কারণ স্ত্রী সাক্ষী যা করতে চায় তাই করতে দেন তিনি। চেন্নাইয়ে এক অনুষ্ঠানে কথা বলতে গিয়ে নিজের বৈবাহিক জীবনকে এভাবেই তুলে ধরেন ধোনি, যা শুনে হাসিতে ফেটে পড়েন দর্শকরা।

বিয়ে নিয়ে কথা বলতে গিয়ে ধোনি বলেন, “বিয়ের আগে সব পুরুষই সিংহ। কিন্তু বিয়ের আসল বিষয়টি বোঝা যায় ৫৫ বছর বয়স পেরিয়ে যাওয়ার পর। আমার স্ত্রী যা করতে চায় তাই করতেই আমি অনুমতি দেই। কারণ আমার স্ত্রী সুখে থাকলে আমি সুখে থাকব।”

২০১০ সালে ধোনির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন ধোনি। তাদের ঘরে আছে জিভা নামের এক কন্যা সন্তান।

জুলাইয়ে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল থেকে ভারতের বিদায়ের পর থেকেই মাঠের বাইরে ধোনি। দলের সঙ্গে ছিলেন না ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের বিপক্ষে হোম সিরিজেও।

আবার সামনে রয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজ। ইতিমধ্যেই সেই দল ঘোষণা হয়ে গিয়েছে। কিন্তু সেখানেও দলে নেই ধোনি।

সবশেষ আইপিএল ও বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্সের পর দুই মাসের ছুটি নিয়েছিলেন টিম ইন্ডিয়ার সাবেক অধিনায়ক ধোনি। এই সময়ে আর্মি রেজিমেন্টের সঙ্গে ট্রেনিং করেন তিনি।

তবে মঙ্গলবার ভারতের হেড কোচ রবি শাস্ত্রী আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ধোনির খেলার সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দেননি। অস্ট্রেলিয়ায় হবে এই টুর্নামেন্ট। যদিও ৫০ ওভারের বিশ্বকাপের পর থেকে ধোনির ভবিষ্যৎ নিয়ে তৈরি হয়েছে অনেক জল্পনা।

মন্তব্য