| প্রচ্ছদ

পাকিস্তানের এত বাজে বোলিং আর কখনও দেখিনি: পন্টিং

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৮৩ বার। প্রকাশ: ০১ ডিসেম্বর ২০১৯ ।

একটা সময়ে পাকিস্তানের বোলিং আক্রমণ ছিল বিশ্বমানের। ওয়াসিম আকরাম, ওয়াকার ইউনুস এবং শোয়েব আখতারদের গতির সামনে বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যানরাও থরথরে কাঁপতেন। সেই পাকিস্তান এখন শুধুই অতীত।

পাকিস্তান ক্রিকেট দলের বর্তমান বোলিং আক্রমণ খুবই বাজে। এমনটি বলছেন অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি ক্রিকেটার রিকি পন্টিং।

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক পন্টিং বলেন, পাকিস্তানি বোলাররা খুবই বাজে বোলিং করেছে। টেস্ট ম্যাচের জন্য এই বোলিং আক্রমণ একদমই দুর্বল। আমি জানি না, এর চেয়ে বাজে বোলিং আমাদের দেশে আর কখনও দেখেছি কি না।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পার্থে ব্রিসবেন টেস্টে অভিষেক করানো হয়েছিল পাকিস্তানের ১৬ বছর বয়সী পেসার নাসিম শাহকে। দ্বিতীয় ম্যাচেই বাদ দেয়া হয় তাকে। অ্যাডিলেডে টেস্ট ক্যাপ দেয়া হয়েছে ১৯ বছর বয়সী মোহাম্মদ মুসাকে। পাকিস্তানের এ সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন পন্টিং।

ক্রিকেট ডট কম অস্ট্রেলিয়াকে দেয়া সাক্ষাৎকারে পন্টিং বলেন, আমি কিছুতেই বুঝতে পারছি না, কী কারণে ১৬ বছর বয়সী ছেলেটা নাসিম) এই ম্যাচ খেলছে না। তারা এখন আরেক তরুণ ছেলেকে (মুসা) নিয়ে এসেছে, যে কি না মাত্র ৭টা প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছে। ওকে তো দেখতেই টেস্ট বোলার মনে হয় না।

অস্ট্রেলিয়া সফরে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ব্রিসবেনে ইনিংস ও ৫ রানে পরাজিত হয় পাকিস্তান। চলমান অ্যাডিলেড টেস্টেও ইনিংস পরাজয়ের শঙ্কায় রয়েছে আজহার আলীর নেতৃত্বাধীন দলটি।

অ্যাডিলেডে ডেভিড ওয়ার্নারের রেকর্ড ট্রিপল সেঞ্চুরিতে ৩ উইকেটে ৫৮৯ রান সংগ্রহ করে ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৩৫ রান করে অপরাজিত ছিলেন ওয়ার্নার। ১৬২ রান করেন লাবুশেন।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে বাবর আজমের ৯৭ ও ইয়াসির শাহর (১১৩) রেকর্ড সেঞ্চুরিতে ৩০২ রানে অলআউট পাকিস্তান। ২৮৭ রানে পিছিয়ে থেকে ফলোঅন এড়াতে নেমে ২০ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ইনিংস পরজয়ের শঙ্কায় পড়েছে পাকিস্তান। সোমবার চতুর্থ দিনে প্রত্যাশার চেয়েও বেটার খেলতে না পারলে দুই ম্যাচের সিরিজে ইনিংস ব্যবধানে ট্রফি হাতছাড়া করবে পাকিস্তান।

মন্তব্য