| প্রচ্ছদ

সন্তানকে নিয়ে আরবাজ-মালাইকার ভাবনা একই

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৭ বার। প্রকাশ: ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ।

১৯ বছর সংসারের পর ২০১৭ সালে বিচ্ছেদ হয় বলিউডের এক সময়কার ‘হট কাপল’ মালাইকা অরোরা ও আরবাজ খানের। তাদের ছেলে আরহানের তখন ১২ বছর বয়স। সন্তানের দায়িত্ব ভাগাভাগি হয়েছিল কীভাবে?

সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিষয়টি খুলে বলেন আরবাজ।

তিনি জানান, বেশ কিছু বছর ধরেই বিভিন্ন কারণে তাদের সম্পর্কের গ্রাফটা ক্রমশ নিচের দিকে নামছিল। দুজনেই চেষ্টা করেছিলেন তা ঠিক করতে, কিন্তু পারেননি। এমনকি সন্তানও তাদের এক রাখতে পারেনি।

আরবাজের কথায়, “যখন সন্তান বড় হয়ে যায় তখন বিচ্ছেদ ব্যাপারটা একটু হলেও জটিল হয়ে যেতে থাকে। ছেলের তখন ১২ বছর বয়স। এমনটা নয় যে ও কিছু বুঝত না। ও ভালোমতোই বুঝতে পারত বাবা মায়ের মধ্যে কী হচ্ছে।”

ছেলে আরহানের কাস্টডি নিয়ে দু’জনের মধ্যে কোনো অসুবিধা হয়নি? এর উত্তরে ‘দাবাং’ প্রযোজক বলেন, “এ নিয়ে আমাদের মধ্যে কোনো ঝামেলা হয়নি। দুজনেই একই সিদ্ধান্তে এসেছিলাম যে এই বয়সে আরহানের ওর মায়ের সঙ্গেই থাকা উচিত।”

আরবাজ জানান, কয়েক বছর পর আরহানের বয়স ১৮ হবে। তখন সে নিজেই ঠিক করবে কার কাছে থাকতে চায়।

আরও জানান, মালাইকার সঙ্গে নিত্যদিনের ঝগড়া তাদের ঘিরে থাকা মানুষদেরও বিরক্তির কারণ হয়ে উঠেছিল। সেই জন্যই অনেক টানাপোড়েনের পর সম্পর্ক থেকে সরে আসেন তারা।

যদিও শোনা যায়, মালাইকার সঙ্গে অর্জুনের ঘনিষ্ঠতাই নাকি তাদের বিচ্ছেদের অন্যতম কারণ। বর্তমানে অবশ্য নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে আর লুকোছাপা করেন না অসম বয়সের এই জুটি। অন্যদিকে বিদেশিনী জর্জিয়ার সঙ্গে জমিয়ে প্রেম করছেন আরবাজ।

মন্তব্য