| প্রচ্ছদ

অন-এয়ারে ভোগলেকে অপমান করে এখন ‘অনুতপ্ত’ সঞ্জয়

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৫ বার। প্রকাশ: ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ ।

ইডেনে বাংলাদেশ-ভারত টেস্টে ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় হার্শা ভোগলেকে অপমানজনক কথা বলে বিতর্কের মুখে পড়া সঞ্জয় মাঞ্জরেকার ক্ষমা চেয়েছেন।

সোমবার তিনি বলেন, লাইভে ওইভাবে কথা বলাটা আমার ঠিক হয়নি। আমি অনুতপ্ত।

গোলাপি বলের ম্যাচে গোধূলিতে বল দেখতে সমস্যা হচ্ছে কি না, এমন প্রশ্ন নিয়ে দুজন সেদিন তর্ক করেন। ভোগলে বলেন, গোলাপি বল দেখতে সমস্যা হচ্ছে কি না, তা জিজ্ঞেস করে দেখা দরকার ক্রিকেটারদের।

মাঞ্জরেকার দাবি করেন, বল দেখতে সমস্যা হচ্ছে না। তার মতে, প্রথম দুই দিনে স্লিপ কর্ডনে যেভাবে কঠিন ক্যাচ ধরা হয়েছে, তাতে বল দেখতে সমস্যার প্রশ্নই ওঠে না। ভোগলে ফের বলেন, এ ব্যাপারে ক্রিকেটারদের প্রশ্ন করা উচিত।

মাঞ্জরেকার এবার বলে ওঠেন, ‘আপনাদের উচিত বল দেখা যাচ্ছে কি না তা হার্শাকে প্রশ্ন করা। আমরা যারা অল্প-স্বল্প ক্রিকেট খেলেছি, তাদের বলার দরকার নেই। এটা তো পরিষ্কার যে বল দেখতে কোনও সমস্যা হচ্ছে না।’

সঞ্জয় মূলত এই কথা বলে হার্শাকে খোটা দিয়েছেন। অল্প বয়স থেকে ধারাভাষ্য শুরু করা হার্শা ওইভাবে কোনোদিন শীর্ষ পর্যায়ের প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলেননি।

‘অমন মন্তব্য আমার করা ঠিক হয়নি। অপেশাদার আচরণ করেছি,’ এভাবে দোষ স্বীকার করে সঞ্জয় জানান, ‘ঘটনার দিন প্রডিউসারের কাছে ভুল স্বীকার করেছিলাম। এটা এমন একটা ঘটনা, যার জন্য আমার খারাপ লাগে।’

সঞ্জয় বলেন, ‘যারা আমার বই পড়েছে, যারা জানে ধারাভাষ্যকারদের নিয়ে আমার দৃষ্টিভঙ্গি কেমন। প্রডাকশন কোম্পানিকে আমি আহ্বান জানিয়েছে, ভালো ধারাভাষ্যকারদের সুযোগ দিতে, তার জন্য ক্রিকেট খেলতে হবে এমন কথা বলিনি।’

মন্তব্য