| প্রচ্ছদ

সিনেমা সঙ্কটে নতুন বছরেও বন্ধ হবে অনেক হল

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৬৬ বার। প্রকাশ: ০৩ জানুয়ারী ২০২০ ১৮:৪৬:৩৬ ।

প্রত্যশা জানিয়ে শুরু হলো নতুন বছর। বলা হচ্ছে ঢাকাই চলচ্চিত্রের জন্য ২০২০ নতুন অ্যধায়ের সৃষ্টি করবে। বেশ কিছু ভালো ছবি মুক্তির অপেক্ষায় আছে এ বছরে। যে ছবিগুলো মুক্তি পেলে ঢাকাই চলচ্চিত্র আবার ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছেন চলচ্চিত্রপ্রেমীরা। তবে বছরের শুরুটা প্রত্যাশা নিয়ে শুরু হলেও নতুন বছরকে পুরোনো ছবি দিয়েই বরণ করল ঢালিউড। 

ঢাকাই চলচ্চিত্রের চরম হতাশার বছর ছিলো ২০১৯। সেই হতাশা কাটলনা নতুন বছরের শুরুতেও।  নতুন বছরে কোন ছবি মুক্তি পায়নি। বছরের প্রথম শুক্রবার তাই পুরোনো ছবির পোস্টারই ঝুলছে দেশের প্রেক্ষাগৃহগুলোতে। পুরোনো ছবি নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে হল মালিকদের।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির বরাতে জানা গেছে, প্রথম সপ্তাহে পুরোনো ছবি দিয়েই প্রেক্ষাগৃহে সচল রাখা হয়েছে। হাতাশার কথা হচ্ছে পরের সপ্তাহেও  ভালো ছবি মুক্তি পাচ্ছেনা।  আগামী ১০ জানুয়ীতেও মানহীন দুটি ছবি মুক্তির জন্য নিবন্ধন করা আছে। ছবি দুটি হচ্ছে  ‘জয়নগরের জমিদার’ ও ‘ধ্বংস মানব’। এছাড়াও সাফটা চুক্তির মাধ্যমে  আমদানি করা ছবি ‘রবিবার’ মুক্তি দেয়ার সম্ভাবনার কথা জানা গেছে।  

গত বছরের মতো এ বছরের শুরুটাও তাই হতাশা দিয়েই শুরু হলো। এভাবে চলতে থাকলে এ বছর আরও হল বন্ধ হয়ে যাবে বলে মন্তব্য করলেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সাবেক সভাপতি ও মধুমিতা হলের কর্ণধার ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ। তিনি বলেন, ‘বলা হচ্ছে এ বছর বেশ কিছু ভালো ছবি মুক্তি পাবে। সে সংখ্যাও কিন্তু বেশি না। এই পাঁচ ছয়টা ভালো ছবি দিয়ে ১২ মাস আমরা কীভাবে চলবো। হল কীভাবে সচল থাকবে। বছরের শুরুতেই হল ফাঁকা যাচ্ছে। নতুন সিনেমা নেই। আগামী সপ্তাহে যে ছবি আসবে সেগুলোও দর্শক টানার মতো ছবি না। তাই এ বছরও অনেক হল বন্ধের খবর আসবে।’

২০১৯ সালে মোট আমদানি ও যৌথপ্রযোনার সব মিলিয়ে মুক্তি প্রাপ্ত ছবির সংখ্যা ৫৭টি। এর মধ্যে মাত্র একটি ছবি ব্যবসায়িকভাবে সফল। পুরোনো এ হিসেবে তুলে রেখে নুতন বছর শুরু হলো ঢালিউডে। তবে নতুন বছরও শুরু হলো হতাশা দিয়েই। 

মন্তব্য