| প্রচ্ছদ

দুই মাসের শিশুকন্যাকে হত্যা করে সেপটিক ট্যাংকে ফেলল মা

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১৫৪ বার। প্রকাশ: ২৭ জানুয়ারী ২০২০ ।

দুই মাসের শিশুকন্যাকে হত্যার পর সেপটিক ট্যাংকে ফেলে দেন মা। পরকীয়া কিংবা কন্যাশিশু হওয়ায় মা তাকে হত্যা করেছে বলে ধারণা পুলিশের।

রবিবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার বেলেঘাটায় একটি বহুতল ভবনে ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় মা সন্ধ্যা জৈনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, এ দিন শিশুকন্যার আয়ার সঙ্গে বাড়িতেই ছিলেন মা সন্ধ্যা জৈন। দুপুরে আয়া ছাদে যান। কিছুক্ষণ পরে শ্বশুর এসে দেখেন পুত্রবধূ অচেতন অবস্থায় পড়ে আছেন। ঘরে শিশু নেই।

এর পর সন্ধ্যা সবাইকে জানায়, তার শিশুকে কেউ চুরি করে নিয়ে গেছে। অভিযোগ জানানো হয় থানায়।

এই সময় জানায়, ঘটনার তদন্তে নেমে বেশ কিছু সন্দেহজনক তথ্য পায় পুলিশ। একপর্যায়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর ভেঙে পড়েন মহিলা। পরে আসল ঘটনা জানতে পারে পুলিশ।

সন্ধ্যা জৈন জানায়, তিনি নিজেই দুই মাসের কন্যাসন্তানকে গলা টিপে হত্যা করেছেন। এর পরেই আবাসনের সেপটিক ট্যাংক থেকে উদ্ধার হয় দুধের শিশুর মরদেহ।

প্রাথমিকভাবে পুলিশের ধারণা, বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের জেরে সন্তানকে খুন করা হয়েছে। কন্যা সন্তান হওয়ার ‘হতাশা’ থেকে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে কিনা সেটাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

মন্তব্য