| প্রচ্ছদ

আজ হোয়াইটওয়াশ এড়াতে পারবে টাইগাররা?

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৫ বার। প্রকাশ: ২৭ জানুয়ারী ২০২০ ।

টি২০ সিরিজের ফয়সালা হয়ে গেছে। প্রথম দুই ম্যাচে দাঁড়াতেই পারেনি বাংলাদেশ। আরও সুনির্দিষ্ট করে বললে, প্রত্যাশার ছিটেফোঁটাও মেটাতে পারেননি ব্যাটসম্যানরা। আজ কি তারা ঘুরে দাঁড়াতে পারবেন? পারবেন কি হোয়াইটওয়াশের লজ্জা বাঁচাতে? 

হোয়াইটওয়াশ বাঁচানোর ম্যাচে বেশ কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষাও চালাতে পারে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট। অভিষেক হতে পারে তরুণ পেসার হাসান মাহমুদের। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টায় শুরু হবে সিরিজের তৃতীয় টি২০ ম্যাচ। নিরাপত্তার ঘেরাটোপে থেকেও ভালো কিছুর প্রত্যাশা নিয়েই সিরিজটি শুরু করেছিল বাংলাদেশ। কারণ ছিল পাকিস্তানের সাম্প্রতিক টি২০ ফর্ম।

র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ দল হলেও এ সিরিজের আগে দশ টি২০র আটটিতেই হেরেছিল পাকিস্তান। এর মধ্যে শ্রীলংকার বিপক্ষে শেষ সিরিজে ৩-০-তে হোয়াইটওয়াশ। কিন্তু সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে ১৪১ ও ১৩৬ রানে আটকে যায় বাংলাদেশ। 

দুই ম্যাচেই সহজেই লক্ষ্য তাড়া করে ফেলে পাকিস্তানিরা। যদিও লাহোরে পিচ নিয়ে কিছু প্রশ্ন উঠেছে। চার-ছক্কার টি২০ ফরম্যাটের জন্য মন্থর উইকেট বানানোর যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন অনেকে। তাই বলে বাংলাদেশের ওপেনাররা যেভাবে ব্যাটিং করছেন সেটা বেশ দৃষ্টিকটুই লেগেছে।

তামিম ইকবাল ও নাঈম শেখের ওপেনিং জুটি পাওয়ার প্লের ন্যুনতম ফায়দা তুলতে পারেনি। পাকিস্তানের বোলারদের মোকাবিলা করতে গিয়ে তারা যেন ভড়কে যাচ্ছেন। একের পর এক ডট বল দিয়ে পরের ব্যাটসম্যানদের কাজটা কঠিন করে দিচ্ছেন। অথচ স্কোয়াডে ওপেনার আছেন ছয়জন। হয়তো এ কারণেই আজ ওপেনিং জুটিতে পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা রয়েছে। তামিমের সঙ্গে নামতে পারেন লিটন দাস। তিন নম্বরে মেহেদী হাসানের বদলে আসতে পারেন নাজমুল হোসেন শান্ত। প্রমোশন হতে পারে সৌম্য সরকারেরও।

পরিবর্তনের ইঙ্গিতটা দ্বিতীয় ম্যাচ শেষেই দিয়েছেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো, 'সবাইকে সুযোগ দিতে হবে আমার। সিরিজে আমরা ২-০-তে পিছিয়ে আছি। স্কোয়াডে তিনজন এখনও খেলেনি, ওরা দলে আসতে পারে। আরও কিছু বিকল্প ভেবে দেখব আমরা।' আগামী অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠেয় টি২০ বিশ্বকাপের জন্যই সবাইকে পরখ করতে চান কোচ। ব্যাটসম্যানরা ভালো পুঁজি দিতে না পারায় বোলাররা নিজেদের মেলে ধরতে পারছেন না।

গত দুই ম্যাচে সবচেয়ে বেশি হতাশ করেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। ৭ ওভারে ৬৯ রান দিয়ে একটি মাত্র উইকেট শিকার করেছেন বাঁহাতি এ পেসার। তার লাগামহীন বোলিংয়ের জন্য পাকিস্তানিদের কাজটা আরও সহজ হয়ে যাচ্ছে। তাই আজ মুস্তাফিজের ডাগ আউটে বসার সম্ভাবনা রয়েছে। কোচের কথা অনুযায়ী আজ খেলতে পারেন অভিজ্ঞ পেসার রুবেল হোসেন। তাহলে শফিউল ও আল-আমিনের মধ্যে একজনকে বাইরে চলে যেতে হবে। আবার চার পেসার নিয়ে খেললে থাকতে পারেন তারা দু'জনই। সে ক্ষেত্রে স্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান বাদ পড়তে পারেন। তবে বিপিএলে চমক দেখানো হাসান মাহমুদের মাঠে নামাটা এক প্রকার নিশ্চিত।

সিরিজ নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় পাকিস্তানও আজ একাদশ নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবে। অভিষেক হতে পারে লেগস্পিনার উসমান কাদিরের। পেস অলরাউন্ডার আমাদ বাটেরও অভিষেকের সম্ভাবনা রয়েছে। সে ক্ষেত্রে বিশ্রাম পেতে পারেন স্পিনিং অলরাউন্ডার ইমাদ ওয়াসিম ও পেসার হারিস রউফ। গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে আজও মন্থর উইকেটের সম্ভাবনাই বেশি। তাই খুব বড় স্কোর হয়তো দেখা যাবে না। তবে সকালের দিকে লাহোরে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আর বৃষ্টি হলে ম্যাচের ওপর ভালোই প্রভাব পড়বে।

মন্তব্য