| প্রচ্ছদ

নওগাঁয় সমকাল সুহৃদ সমাবেশের শীতবস্ত্র বিতরণ

এম আর ইসলাম রতন ,নওগাঁ প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৫৮ বার। প্রকাশ: ৩১ জানুয়ারী ২০২০ ।

ফিন ফিনে পাতলা কাপড় শরীরে পেচিয়ে ঠান্ডা থেকে বাঁচার চেষ্টা করছিলাম কিন্তু প্রচন্ড শীতে শরীর ক্যাপছিল এমন সময় শরীরে কম্বল জড়িয়ে দেয়া হলো। মনে হলো প্রচন্ড ঠান্ডা থেকে প্রাণ ফিরে পেলাম। কথাগুলো বলছিলেন নওগাঁ বদলগাছী উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামের ক্ষুদ্র-নৃ গোষ্টির পাহান সম্প্রদাযের নারী তুলামনি পাহান(৫৫)। শুক্রবার নওগাঁ বদলগাছী উপজেলার গয়েশপুর হাজী শরীয়তুল্লাহ ওয়াকফ এসটেট অফিস চত্তরে সমকাল সুহৃদ সমাবেশের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরন অনুষ্ঠানে নিজের একটি কম্বল ও একটি সুইটার নিতে আসা তুলামনি পাহান এভাবেই তার অভিব্যাক্তি গুলো প্রকাশ করেন। অন্যের জমিতে মজুর দিয়ে খেটে খাওয়া এই নারী বলেন জীবনে অনেক শীত পার করেছি,বুড়া হয়ে গেনু,আজতক একটেও গরম কাপড় পাওনি। মুই জীবনের পহেলা কম্বল পানু( অর্থাৎ বৃদ্ধ হয়ে গেলাম এখন পর্যন্ত কোন গরম কাপড় পাইনি, জীবনে এই প্রথম একটি কম্বল পেলাম।)  একই গ্রামের মালতি পাহান(৪৫),বাদল পাহানু(৫৬),রমেশ পাহান(৬০),মাহমুদপুর গ্রামের সুজা পাহান(৬০),জোবেদা বেওয়া(৬৫), শায়েরা বেওয়া (৭০),গনেশপুর গ্রামের হাজেরা বেওয়া(৬৫) ও ধামইরহাট উপজেলার ইশবপুর ইউনিয়নের ধরইল গ্রামের ছয়ফুদ্দিন প্রামানিক(৬০) ও হরিদাস পাহান(৭০)একইভাবে কথা বলেন। তারা সকলেই শীতবস্ত্র বিতরনের সাথে জড়িতদের অভিনন্দন জানান।

 
এদিকে উত্তরাঞ্চলে শীতের তীব্রতা এবার প্রকোপ। সেই সঙ্গে বইছে শৈত প্রবাহ। বিশেষ করে বরেন্দ্র অঞ্জলের সমতল ভূমির পিছিয়ে পড়া ক্ষুদ্র নৃতাত্বিক গোষ্টির মানুষেরা রয়েছে চরম দুর্ভোগে। ভুক্তভোগীদের কষ্ট লাঘবে শীতের সকালে আল-খায়ের ফাউন্ডেশন,সারমিন গ্রুপ ও লাবিব গ্রুপ এর সগযোগিতায় নওগাঁর বরেন্দ্র অঞ্চলে শীতবস্ত্র নিয়ে তাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ। এসব অসহায় সমাজের পিছিয়ে থাকা শীর্তাত মানুষেরা শীতবস্ত্র পেয়ে তাদের মুখে ফুটেছে হাসি। শীতের তীব্রতা থেকে ফিরে পেয়েছে প্রাণ।

 
ওইদিন সকালে নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার গয়েশপুর গ্রামের হাজী শরিয়তুল্লাহ ওয়াকফ এসটেট চত্তরে জেলার বদলগাছী উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের গনেশপুর.পার-সাবিলা,শ্যামপুর.পিরোজপুর,মাহমুদপুর ও ধামইরহাট উপজেলার ইশবপুর ইউনিয়নের জামালপুর ও ধরইল গ্রামের আড়াই শতাধিক হতদরিদ্র আদিবাসী ও দুস্থ অসহায় শীর্তাতদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। সমকাল সুহৃদ সমাবেশের উদ্যোগে শীতবস্ত্র হিসেবে একটি করে সুয়েটার ও কম্বল তুলে দেয়া হয় প্রত্যেক সুবিধাবঞ্চিতের হাতে।


গত এক সপ্তাহ ধরে জেলা কমিটির সুহৃদ বন্ধুরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে সকলের হাতে হাতে শীত বস্ত্রের টোকেন গুলো পৌছে দেয়। এরমধ্যে অধিকাংশ ছিল আদিবাসী নারী -পুরুষ,প্রতিবন্দি ও স্থানীয় দুস্থ্র অসহায মানুষ। অনুষ্টানের দিন সকাল সাড়ে ৮ টায জেলা সদর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দুরে গয়েশপুর ওয়াকফ এস্টেট চত্তরে পৌছে যায় সুহৃদ বন্ধুরা। তারা এক এক করে কম্বল ও সইটার গুলো টেবিলের উপর সাজিয়ে রাখে। এর কিছুক্ষনের মধ্যে মঞ্চের সামনে রাখা আসন গুলো ভরে যায় অসহায় নারী-পুরুষে। সুহৃদ বন্ধু ও স্থানীয় জন সাধারন চেয়ারে বসা এসব অসহায় মানুষদের কাছে গিয়ে পৌছে দেয শীতবস্ত্র। এতে সবচেযে বেশী খুশি হয়েছে সুবিধা ভোগীরা।


এ উপলক্ষে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ জেলা কমিটির সহ-অর্থ সম্পাদক ও শীতবস্ত্র বিতরণ উপকমিটির আহবাযক মোঃ মেজবা উদ্দীন মিথুন এর সভাপতিত্বে আয়োজিত শীত বস্ত্র বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে শীর্তাতের হাতে শীতবস্ত্র তুলে দেন নওগাঁ সরকারী কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ শরিফুল ইসলাম খাঁন। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জাপান-বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থার রাজশাহী অঞ্চলের সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গির আলম চৌধুরী,বিশিষ্ঠ আইনজীবী মোঃ এমরান হোসেন চৌধুরী দিপ্ত,গয়েশপুর হাই স্কুলের সাবেক শিক্ষক আব্দুল ওয়াদুদ চৌধরীম হাজী শরিয়তুল্লাহ ওয়াকফ এসটেট এর পরিচালক মাহাবুবুল আলম চৌধুরী মজনু,শিবলি আকতার চৌধুরী,গয়েশপুর মাদ্রাসার সুপার মোঃ হাফিজার রহমান,সমকাল নওগাঁ প্রতিনিধি এম আর ইসলাম রতন, সমকাল সুহৃদ সমাবেশ জেলা কমিটির সভাপতি গুলশান আরা,সাধারন সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল রাফি সরোজ প্রমুখ। এসময় সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সুহৃদ নওগাঁ জেলা কমিটির যুগ্ন সম্পাদক এস এম জুম্মান রুশদী.সাংগঠনিক সম্পাদক সেতু ইসলাম,অর্থ সম্পাদক শেখ রুহুল আমিন রাসেল,সদস্য বিলাশ কুমার সাহা ও সাংবাদিক রাসেল রানা।


প্রধান অতিথি প্রফেসর শরিফুল ইসলাম খাঁন বলেন, সমকাল সুহৃদ সমাবেশ সব-সময় সুবিধা বঞ্চিত মানুষের পাশে এসে দাঁড়ায়। তারা নানা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে ইতিমধ্যে সকলের নজর কেড়েছে। আগামীতে তারা আরো ভাল উদ্যোগ নিবে সেই প্রত্যাশা থাকছে। পাশাপাশি আল খায়ের ফাউন্ডেশন,সারমিন ও লাবিব গ্রুপ যে মহতি উদ্যোগ নিযে মানুষের পাশে এসে দাড়িয়েছে তার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখারও প্রত্যাশা করেন্। এসময় তিনি সহযোগী সংস্থা গুলোকে ধন্যবাদ জানান।


জাপান-বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থার রাজশাহী অঞ্চলের সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গির আলম চৌধুরী বলেন প্রচন্ড শীত থেকে মানুষকে বাচাঁতে বিশেষ করে পিছিয়ে পড়া ক্ষুদ্র নৃ-তাত্বিক গোষ্টির হত দরিদ্র মানুষের পাশে এসে দাড়ানো একটি মহতি উদ্যোগ নিয়েছে সমকাল সুহৃদ সমাবেশ। এই জন্য জানাই তাদের আন্তরিক অভিনন্দন ও ধন্যবাদ।

 
সংগঠনের সভাপতি গুলশান আরা অসহায় মানুষের সেব্য়া সংগঠনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কার্যক্রম করে আসছে উল্লেখ করে এ অঞ্চলের হতদরিদ্র অধিবাসী ও ক্ষুদ্র নৃতাত্বিক গোষ্টির মানুষের পাশে শীতবস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করতে পেরে নিজেদেরকে ধন্য মনে করছি। বরাবরই তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা আমাদের অব্যাহত থাকবে। সেই সঙ্গে তিনি আল খাযের ফাউন্ডেশন,সারমিন গ্রুপ ও লাবিব গ্রুপকে সহযোগিতা করার জন্য আন্তরিক ভাবে কৃজ্ঞতা প্রকাশ করেন।


ওয়াকফ এষ্টেট এর পরিচালক মাহাবুবুল আলম চৌধুরী সমকাল সুহৃদ সমাবেশকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন আজকে তারা যে কাজ করছে তা সিঃসন্দেহে একটি মহতি উদ্যোগ। সুবিধা ভোগীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন দাতারা শুধু দিয়েই যাবেন আর আপনারা একেকজন ৩/৪ টা করে কম্বলের মালিক হবেন সেটা ঠিক হকে না। আজকে আপনারা যারা শীতবস্ত্র পেলেন তারা আগামীতে আর কোথাও শীতবস্ত্র নিতে যাবেন না। আপনারই পারেন বঞ্চিতদেরকে সহায়তা করতে। তিনি  এসময় সহযোগী সংস্থার মত সমাজের ধনাঢ্য ব্যাক্তি ও অন্যান্য সংগঠনগুলো দুস্থদের সহায়তায় হাত বাড়িয়ে দিলে শুধু শীত নয় যে কোন দুর্ভোগ লাঘব হবে।
 

মন্তব্য