| প্রচ্ছদ

প্রথম ওভারেই ৪ উইকেট শফিউলের

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৯ বার। প্রকাশ: ৩১ জানুয়ারী ২০২০ ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) অষ্টম পর্বের প্রথম দিন বোলারদের। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সাউথ জোনের বিপক্ষে নর্থ জোনের পেসাররা দাপট দেখিয়েছেন। দাপট দেখিয়েছেন সাউথ জোনের পেসারও। ঢাকার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে সেন্ট্রাল জোনের বিপক্ষে দাপট দেখিয়েছেন ইস্ট জোনের স্পিনাররা।

সাউথ জোন প্রথমে ব্যাট করে ২৬২ রানে অলআউট হয়ে যায়। নর্থ জোনের পেসার তাসকিন আহমেদ এবং ইবাদত হোসেন দুটি করে উইকেট নেন। পেসার সুমন খান নেন তিন উইকেট। সাউথ জোনের ফজলে রাব্বি সেঞ্চুরি করেন। থামেন ১২৫ রানে। মাহমুদুল্লাহ ৩১ রান করেন।

এরপর ব্যাটিংয়ে নেমে নর্থ জোন ৪৬ রানে হারায় ৫ উইকেট। লিটন দাস গোল্ডেন ডাক মেরে আউট হন। জুনায়েদ সিদ্দিকী-নাঈম ইসলামরা রান করতে পারেননি। সাউথ জোনের পেসার শফিউল ইসলাম ৬ ওভারে ৩০ রান দিয়ে তুলে নেন ৫ উইকেট। তিনি মনে করান পাকিস্তানের বিপক্ষে ইরফান পাঠানের সেই স্পেলকে। প্রথম ওভারে সেবার হ্যাটট্রিক করেন ইরফান পাঠান। শফিউল ওভার হ্যাটট্রিকসহ প্রথম ওভারেই নেন ৪ উইকেট।

ওদিকে ঢাকায় ইস্ট জোনের বিপক্ষে শুরুতে ব্যাটিং করে ধুঁকতে থাকে সেন্ট্রাল জোন। সাইফ হাসান তিনশ' ৩৩ মিনিট তথা ৫ ঘণ্টা ৩৩ মিনিট ব্যাটিং করে ৫৮ রান করে আউট হন। অন্যরা কেউ ক্রিজে পড়ে থাকতে পারেননি। সৌম্য সরকার ৩৬, নাজমুল শান্ত ১০, মোহাম্মদ মিঠুন ৩, তাইবুর রহমান ৪৬ এবং সোহরাওয়ার্দী শুভ ৩১ রান করে আউট হন।

সেন্ট্রাল জোন ২১৩ রানে অলআউট হয়। ইস্ট জোনের স্পিনার তাইজুল ইসলাম ৫ উইকেট তুলে নেন। দুটি উইকেট নেন নাঈম হাসান। এছাড়া পেসার আবু জায়েদ নেন ২ উইকেট। প্রথম দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামেনি ইস্ট জোন।

মন্তব্য