| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় ছিনতাইকৃত লবণবোঝাই ট্রাক উদ্ধার: গ্রেফতার ২

আমিনুল ইসলাম শ্রাবণ
পঠিত হয়েছে ১০২ বার। প্রকাশ: ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ছিনতাই হয়ে যাওয়া ২০৭ বস্তা লবণবোঝাই একটি ট্রাক উদ্ধার করেছে পুলিশ। এছাড়া ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ট্রাক চালক ও হেলপারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ধুনট থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো বগুড়ার শেরপুর উপজেলার দড়িমকন্দ গ্রামের হাবিবর রহমানের ছেলে ট্রাক চালক রনজু মিয়া (৪৫) ও শাজাহানপুর উপজেলার নয় মাইল গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে হেলপার আব্দুল বারেক (২৬)। গত ৩০ জানুয়ারি ধুনট উপজেলার নিমগাছী ইউনিয়নের বেড়েরবাড়ী সেতু এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। শনিবার সকালে তাদের আদালতের মাধ্যমে বগুড়ার কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার রাগাইচটি গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে বুলবুল মিয়া একজন পাইকেরী লবণ ব্যবসায়ী। তিনি ২৬ জানুয়ারি কক্সবাজারের নাপিতখালী ইসলামপুর শিল্প এলাকার আল সৌদিয়া সল্ট ক্রাশিং ইন্ডাস্ট্রিজ থেকে ৭০ কেজি ওজনের ১৩০ বস্তা ও ৬৪ কেজি ওজনের ৭৭ বস্তা লবণ ক্রয় করেন। ওই দিন রাত ৯টায় তিন বোন এন্টারপ্রাইজ নামের ট্রাকে (ঢাকা মেট্রো ট ২২-১৯৬০) মোট ২০৭ বস্তা লবণ বোঝাই দিয়ে ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার উদ্দেশে রওনা দেন। পথিমধ্যে চট্টগ্রামের ভাটিয়ারী দরগাহাটা এলাকায় পৌছুলে লবণের মালিক বুলবুল মিয়াকে ট্রাক থেকে কৌশলে নামিয়ে দিয়ে চালক ও হেলপাররা ২০৭ বস্তা লবণ বোঝাই ট্রাক নিয়ে সটকে পড়ে। পরে তারা ট্রাকের নম্বর প্লেট পরিবর্তন করে (ঢাকা মেট্রো ট ২২-৩১৮১) ধুনট উপজেলার নিমগাছি গ্রামের মামুন মিয়া তপন নামে তাদের এক সহযোগীর বাড়ির দিকে রওনা হয়। এ অবস্থায় ৩০ জানুয়ারি সকালে ধুনট উপজেলার বেড়েরবাড়ী বাঙ্গালী নদীর ওপর সেতুর নিকট ট্রাকটি যাত্রা বিরতি দেয়। এসময় ট্রাকের চালক ও হেলপার রাস্তায় থামানো ট্রাকের পাশে বসেছিল। তবে তাদের আচারণ চিল সন্দেহজনক। ফলে স্থানীয়রা ধুনট থানায় সংবাদ দেয়। সংবাদ পেয়ে সেখানে অভিযান চালিয়ে লবণ বোঝাই ট্রাকসহ চালক ও হেলপারকে আটক করে পুলিশ। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় লবণের মালিক ব্যবসায়ী বুলবুল ইসলাম বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে ধুনট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় গ্রেফতারকৃত রনজু ও বাকেরসহ পাঁচজনকে আসামী করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা আন্তজেলা ছিনতাইকারী দলের সদস্য। মামলার অপর আসামীদের গ্রেফতার করে পুলিশ তৎপর রয়েছে। 

মন্তব্য