| প্রচ্ছদ

প্রধানমন্ত্রীকে স্বপ্নের কথা লিখে পাঠালো চারশো কৃতি শিক্ষার্থী

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি
পঠিত হয়েছে ৬০ বার। প্রকাশ: ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

অনেক স্বপ্নই তো থাকে মনে বাসা বেঁধে। সব কথা তো আর বলা হয়না। শিক্ষা জীবনের শুরুতে নানা রকমের স্বপ্ন দেখলেও শেষ দিকে সে স্বপ্ন আর ছোঁয়া হয়না অনেকেরই। জীবনের বহমান নদী এঁকে বেঁকে চলতে থাকে কোথাও থমকে দাঁড়ায়। কোথাও আবার সব বাঁধাকে অতিক্রম করে এগোতে থাকে।

ঘটনার বাস্তবতায় হারিয়ে যায় শৈশবের সেসব স্বপ্ন। নিজেদের সেই স্বপ্ন আর সম্ভাব্য বাঁধার কথা কৃতি শিক্ষার্থীরা লিখে পাঠালো মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে পোস্ট কার্ডে লিখে।

শনিবার সকাল ১০ টায় পঞ্চগড়ের বোদায় জাপান ভিত্তিক স্বেচ্ছাব্রতী সংস্থা হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড এবং ইয়ূথ এগেইনষ্ট হাঙ্গারের আয়োজনে উপজেলার জেএসসি এবং পিইসি পরীক্ষায় জিপিএ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের প্রতি বছরের মত এবারও সংবর্ধনা প্রদান করে। এবার প্রায় চারশো শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা প্রদন করা হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বোদা মহিলা মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ আশরাফুল আলম। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বোদা উপজেলা পরিষদ এর চেয়ারম্যান ফারুক আলম টবি। তিনি বলেন, শুদ্ধাচার, বিনয়ী, সত্যবাদী, মানবিক মূল্যবোধ সম্বলিত দেশপ্রেমিক নাগরিক হয়ে স্বাধীন দেশের প্রতি দায়িত্ব পালন করতে হবে। দেশটা আমাদের সবার। অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে ক্ষুধামুক্ত ও দারিদ্রমুক্ত বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়তে আমাদের কৃতি শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের জন্য প্রস্তুত হতে হবে। মুজিববর্ষে ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তের ঋণ শোধ করার অঙ্গীকার আমাদের করতে হবে।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ এর ডেভেলপমেন্ট কো-অর্ডিনেটর সোহেল রানা, আয়া কো- অর্ডিনেটর গাজী আনিকা আসলাম, প্রোগ্রাম অফিসার মালেকা বেগম ও প্রত্যাশা ২০২১ ফোরামের সদস্য শফিউল আলম টুটুল। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড বোদা পঞ্চগড়ের প্রোগ্রাম অফিসার (ম্যানেজমেন্ট) সিজুল ইসলাম। অতিথিদের বক্তব্যের ফাঁকে কিছু শিক্ষার্থী, অভিভাবক এবং শিক্ষক তাঁদের অনুভূতি প্রকাশ করতে যেয়ে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। অনুভূতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক আতাউর রহমান, এনামুল হক, কৌশল চন্দ্র বর্মন, ইকবাল হোসেন, আব্দুস সাত্তার এবং জোছনা রানী।

অনুষ্ঠানের শুরুতে আবৃত্তি ও গান পরিবেশন করে কৃতি শিক্ষার্থী সাইকা আলম, মেশকাতুল জান্নাত মৃণ্ময়, এশা জান্নাত, মেহেদী হাসান, সাহাদত হোসেন, বুশরা ই আজরিন, রাইয়ান সামনী রোজা, জুনায়েদ খান জয় ও সাদিক আলম সিয়াম। মুক্তিযুদ্ধের উপর একক অভিনয় করে জেমি আক্তার।

আলোচনা সভা শেষে পোস্টকার্ডে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে শিক্ষার্থীদের লেখার কয়েকটা পাঠ করেন প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আলম টবি। তারা অনেকে প্রধানমন্ত্রীকে শিক্ষাক্ষেত্রে নানা অবদানের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে লিখেছে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, আইনজীবী , শিক্ষক, সেনাবাহিনীর সদস্য তারা হতে চায় কিন্তু অনেকে পৌরসভার বাসিন্দা হলেও বাড়িতে যাবার রাস্তা নাই বিদ্যুৎ নেই। অনেকে লিখেছেন বেকারত্ব দূরীকরণে কারিগরি শিক্ষার প্রতি অধিক গুরুত্ব দেবার জন্য।

এরপর শিক্ষার্থীদের মেডেল পড়িয়ে তাদের হাতে সম্মাননা সনদ তুলে দেন অতিথিরা। এছাড়াও ইয়ূথ এগেইনষ্ট হাঙ্গার তাদের ১৮ জন এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা দেয় এবং শুভেচ্ছা উপহার তুলে দেয়।

মন্তব্য