| প্রচ্ছদ

প্রস্তুত ‘সুপারফাস্ট’ হাসপাতাল, মৃত বেড়ে ৩৬১

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৮ বার। প্রকাশ: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

এক সপ্তাহের ভেতর প্রস্তুত হয়ে যাওয়া চীনের হাজার বেডের করোনাভাইরাস হাসপাতালে সোমবার থেকে রোগী ভর্তি শুরু হয়েছে। শুধু এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জন্য নির্মিত হাসপাতালটি বিশ্ববাসীর কাছে ‘সুপারফাস্ট’ নামে পরিচিতি পাচ্ছে।

রহস্যময় ভাইরাসটিতে এখন পর্যন্ত ৩৬১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। রবিবার পর্যন্ত ছিল ৩০৪। আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজার ছাড়িয়েছে!

যে হুবেই প্রদেশ থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে সেখানেই শুধু মারা গেছে ৩৫০ জন। আক্রান্ত ১১ হাজারের বেশি।

এখন পর্যন্ত ৩২৮ জন ‍সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন।

চিকিৎসকেরা বলছেন, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো হলে এ রোগ কিছুদিন পর এমনিতেই সেরে যেতে পারে। তবে ডায়াবেটিস, কিডনি, হৃদযন্ত্র বা ফুসফুসের পুরোনো রোগীদের ক্ষেত্রে মারাত্মক জটিলতা দেখা দিতে পারে। এটি মোড় নিতে পারে নিউমোনিয়া, রেসপিরেটরি ফেইলিউর বা কিডনি অকার্যকারিতার দিকে। পরিণতিতে ঘটতে পারে মৃত্যু।

করোনাভাইরাস মূলত শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ ঘটায়। লক্ষণগুলো হয় অনেকটা নিউমোনিয়ার মতো। কারও ক্ষেত্রে ডায়রিয়াও দেখা দিতে পারে।

এর লক্ষণ শুরু হয় জ্বর দিয়ে, সঙ্গে থাকতে পারে সর্দি, শুকনো কাশি, মাথাব্যথা, গলাব্যথা ও শরীর ব্যথা। সপ্তাহখানেকের মধ্যে দেখা দিতে পারে শ্বাসকষ্ট। সাধারণ ফ্লুর মতই হাঁচি-কাশির মাধ্যমে ছড়াতে পারে এ রোগের ভাইরাস।

মন্তব্য