| প্রচ্ছদ

নওগাঁর নিয়ামতপুরে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

নওগাঁ প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৪৩ বার। প্রকাশ: ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

নওগাঁর নিয়ামতপুরে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জের ধরে নারগিস বেগম (৪০) নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে নিয়ামতপুর উপজেলার সন্তোষপুর গ্রামে। এই ঘটনায় স্ত্রীর পক্ষ নেওয়ায় নিহতের স্বামী আলীম উদ্দিনকেও পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে গুরুত্বর আহত করা হয়। আহত স্বামী নিয়ামতপুর স্বাস্থ্য কম্পেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় নিহতের ভাই শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মঙ্গলবার দুপুরে ৬ জনকে আসামি করে নিয়ামতপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ওইদিন বিকেলে মযনাতদন্তের জন্য লাশ নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে। 
নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, নারগিসের শাশুড়ীকে চাল দেয়াকে কেন্দ্র করে বউ শাশুড়ীর মধ্যে বাগবিতন্ডা সৃষ্ঠি হয়। এর জের ধরে নারগিসের ননদ,ননদের স্বামী ও দেবররা মিলে গত শনিবার রাতে তাকে বেদম মারপিট করে। বাধা দিতে গেলে নারগিসের স্বামী আলিম উদ্দিনকেও বেধড়ক মারপিট করা হয়। এতে নারগিস গুরুত্বর আহত অবস্থায় মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও আলিমকে নিয়ামতপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। মান্দা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নারগিসের অবস্তার অবনতি হলে রোববার বিকেলে তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নারগিস গতকাল সোমবার বিকেলে মারা যান। সোমবার রাতেই রাজশাহী মেডিক্যাল থেকে নিহত নারগিসের লাশ তার পিতার বাড়ি জেলার মান্দা উপজেলার গনেশপুর গ্রামে নিয়ে আসা হয়। মামলা দায়ের পর নিয়ামতপুর থানা পুলিশ ওই গ্রাম থেকে লাশ উদ্ধার করে। 
এদিকে এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুুলশ বলে জানিয়েছেন ওসি আবুল কালাম আজাদ।

 

মন্তব্য