| প্রচ্ছদ

বাংলাদেশ সিরিজে ১৯ কোটি টাকা ক্ষতি পিসিবি’র

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১৯ বার। প্রকাশ: ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

অনেক দেন দরবারের পর বাংলাদেশ দল পাকিস্তান সফরে গেলেও শুরুতে তা নিয়ে যে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল তাতে বড় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। দেশটির প্রভাবশালী দৈনিক ডন-এর এক প্রতিবেদনে এমনটায় দাবি করা হয়েছে।

বাংলাদেশের সঙ্গে সিরিজের মিডিয়া স্বত্ব থেকে বোর্ডের যেই আয় হওয়ার কথা ছিল, তাতো হচ্ছেই না, উল্টো ক্ষতি ২.২৫ মিলিয়ন ডলার। বাংলাদেশি অর্থে যা ১৯ কোটি টাকারও বেশি!

তবে এখানে বাংলাদেশের কোনো দায় নেই। কেননা পিসিবি এই ক্ষতির সন্মুখীন হয়েছে মিডিয়া স্বত্ব নিয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে দর-কষাকষিতে।

পিসিবির মিডিয়া স্বত্বের মালিকানা ছিল ভারতীয় এক সংস্থার কাছে। সেখান থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণে অর্থ পেত পিসিবি। ২০১৫ সালে করা সেই চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়েছে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে এসে। চুক্তি অনুযায়ী শ্রীলঙ্কা সিরিজই ছিল তাদের শেষ সিরিজ।

তবে বিপত্তি বাধায় পিসিবি। তাদের দাবী, ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত পাকিস্তানের সব খেলা সম্প্রচারের দায়িত্ব সেই প্রতিষ্ঠানের। সেই সুবাদে আরও ৬ মিলিয়ন ডলার পাওয়ার কথা পিসিবির। বাংলাদেশের সঙ্গে তিনটি টি-টোয়েন্টি, দুটি টেস্ট ও এক ওয়ানডে প্রচারের স্বত্ব ওই প্রতিষ্ঠানের দাবি করে সেখান থেকে অর্জিত অর্থের লভ্যাংশ চায় বোর্ড।

কিন্তু তিন ধাপে বাংলাদেশের সিরিজটি অনুষ্ঠিত হওয়ায় সংস্থাটি তা দিতে অস্বীকৃতি জানায়। তাদের দাবি, সিরিজ আয়োজনে তারা পর্যাপ্ত সময় পাননি। মাত্র ৭ দিন সময় পেয়েছেন। এতে করে ঠিকঠাক মতো সিরিজ সম্প্রচার করা সম্ভব হয়নি। ফলে তারা নিজেরাই আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন।

মন্তব্য