| প্রচ্ছদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সঙ্গে বৈঠক করতে চায় ঐক্যফ্রন্ট

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে বার। প্রকাশ: ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৯:৩৮:১৯ ।

আগামী দিনের পথচলার পরিকল্পনা ঠিক করতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করতে চায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

জোটের নেতারা বলছেন, গত ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ঢাকা দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আগে ঐক্যফ্রন্টের ৪টি পথসভা করার কথা ছিল। কিন্তু বিএনপির কারণে সেগুলো করা হয়নি। এভাবে কর্মসূচি ঘোষণা করে- তা পালন করতে না পারলে ফ্রন্টের প্রতি মানুষের আস্থা নষ্ট হয়ে যাবে। ফলে আগামী দিনের কর্মসূচি, কর্মসূচির ধরন ও কীভাবে তা পালন করতে হবে- এ সব বিষয়ে সমাধানের জন্য বিএনপির স্থায়ী কমিটির সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটি বৈঠক করতে চায়।

মঙ্গলবার মতিঝিলে ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে অনুষ্ঠিত ফ্রন্টের বৈঠকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খানকে বৈঠক আয়োজনের প্রস্তাব দেন ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম উদ্যোক্তা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

জানতে চাইলে এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটিকে বৈঠক করার প্রস্তাব দিয়েছি। তবে এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এর বাইরে কিছু বলতে পারব না। ’

জানা গেছে, বৈঠকের একপর্যায়ে জেএসডির নেতা শহীদুল্লাহ কায়সার বলেন, আন্দোলনের যাওয়ার শর্তে আমরা বিএনপিকে সিটি নির্বাচনে সমর্থন দিয়েছি। তাহলে এখনও আমাদের সবাইকে রাস্তায় নামা উচিত। তখন বিএনপির নেতা মঈন খান বলেন, আমাদের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে কেউ হরতাল দিতে রাজি ছিল না। তখন আমি জোটের সমর্থনের কথাটি উপস্থাপন করি। এরপরই নির্বাচনের পরের দিন হরতাল দেয়ার জন্য স্থায়ী কমিটি রাজি হয়েছে।

তখন জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, তাহলে আমরা বিএনপির স্থায়ী কমিটির সঙ্গে বৈঠক করি। আমাদের মধ্যে যেসব সমস্যা আছে সেগুলো নিয়ে কথা বলে সমাধান করি। এর পরিপ্রেক্ষিতে মঈন খান বলেন, স্থায়ী কমিটির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে ফ্রন্টের সঙ্গে বৈঠক করার বিষয়ে রাজি করাতে হবে আগে।

সূত্র জানায়, ঘোষণা দিয়েও পথসভা করতে না পারায় বৈঠকে ক্ষোভ প্রকাশ করেন জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব। তিনি বলেন, আগেও কয়েকবার কর্মসূচির ঘোষণা দিয়ে আমরা পালন করতে পারিনি। এইবারও নির্বাচনের আগে পথসভা করার ঘোষণা দিয়ে করতে পারিনি। যদিও আমি মেয়র প্রার্থীদের অনুরোধে তিনটি পথসভায় অংশ নিয়েছি। নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাও একটি সভায় অংশ নিয়েছেন জোটের পক্ষ থেকে। কিন্তু এইভাবে কর্মসূচি দিয়ে পালন করতে না পারা ঐক্যফ্রন্টের জন্য অশনিসঙ্কেত। এইভাবে চলতে থাকলে ফ্রন্টের ওপর মানুষের আস্থা হারাবে।

পাশ থেকে আরেক নেতা বলেন, বিএনপি সময় দেয়নি বলে পথসভা করা যায়নি। অথচ তারাই ফ্রন্টকে নির্বাচনের মাঠে নামতে অনুরোধ করেছে। তবে, বৈঠকে উপস্থিত বিএনপির নেতা মঈন খান এ সব বিষয়ে কোনো কথা বলেননি।

মন্তব্য