| প্রচ্ছদ

শুভ জন্মদিন বাপ্পা মজুমদার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৫ বার। প্রকাশ: ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

বাংলাদেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী, গীতিকার ও সুরকার বাপ্পা মজুমদার। পারিবারিক নাম শুভাশীষ মজুমদার বাপ্পা। বাবা ওস্তাদ বারীণ মজুমদার ছিলেন উপমহাদেশের একজন বিখ্যাত সংগীতবিশারদ।

সংগীতযুগল ওস্তাদ বারীণ মজুমদার ও ইলা মজুমদারের ঘরে ১৯৭২ সালের আজকের এই দিনে (৫ ফেব্রুয়ারি) জন্মগ্রহণ করেন তিনি। বিশেষ দিনে অসংখ্য অনুরাগীর শুভেচ্ছায় সিক্ত হচ্ছেন বাপ্পা।

সংগীত পরিবারে জন্ম নেয়া বাপ্পা মজুমদারের ছোটবেলাতেই সংগীতে হাতেখড়ি। আর বড় ভাই পার্থ মজুমদারের কাছে খুব ছোটবেলায় গিটার বাজানো শিখেছেন। ১৯৯৫ সালে প্রথম একক অ্যালবাম ‘তখন ভোর বেলা’ দিয়ে সংগীতজগতে আত্মপ্রকাশ করেন বাপ্পা।

সমসাময়িক গান ও আন্তরিকতার কারণে তরুণ ভক্তদের কাছে তিনি বাপ্পাদা নামে পরিচিত। বাপ্পা মূলত বাংলা রোমান্টিক গানের জন্য পরিচিত। তার ব্যান্ড ‘দলছুট’। বাপ্পা ও সংগীতশিল্পী সঞ্জীব চৌধুরী মিলে গড়ে তোলেন এ দল। সঞ্জীবের মৃত্যুর পর নিজেই দলছুটের হাল ধরেন। বাপ্পা মজুমদার ব্যান্ড ও নিজের জন্য গান লেখার পাশাপাশি অন্য শিল্পীদের জন্যও গান লিখেছেন।

বাপ্পার একক অ্যালবাম ‘সূর্যস্নানে চল’ ২০০৮ সালে প্রকাশ হয়। সপ্তম একক অ্যালবাম ‘দিন বাড়ি যায়’ প্রকাশ হয় ২০০৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে। বাপ্পার কণ্ঠ ও সুরের জাদু মোহিত করে সংগীতপ্রিয় শ্রোতাকে।

বাপ্পা মজুমদারের গাওয়া জনপ্রিয় গানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘পরী’, ‘দিন বাড়ি যায়’, ‘সূর্যস্নান’, ‘বায়েস্কোপ’, ‘রাতের ট্রেন’, ‘বাজি’, ‘লাভ-ক্ষতি’, ‘আমার চোখে জল’, ‘ছিল গান ছিল প্রাণ’, ‘কোথাও কেউ নেই’ ইত্যাদি।

মন্তব্য