| প্রচ্ছদ

বাংলাদেশ আর পাকিস্তান হবে না- খাদ্যমন্ত্রী

নওগাঁ (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৬৮ বার। প্রকাশ: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৯:২৭:৩৫ ।

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি বাংলাদেশ আর পাকিস্তান হবে না মন্তব্য করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল ও অপ্রতিরোধ্য ভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। ১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ তাড়ানোর পরে তাদের কথা হলো র্উদু হবে রাষ্ট্রভাষা, সেই থেকে আমাদের আন্দোলন শুরু। আর আন্দোন করেই আমরা মাতৃভাষাকে প্রতিষ্ঠিত করেছি। আজকে সারা বিশ্বে বাংলাদেশের মাতৃভাষা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা হিসাবে রূপান্তরিত হয়েছে

শুক্রবার দুপুরে নওগাঁর পোরশা উপজেলা চত্বরে প্রধানমন্ত্রীর স্বেচ্ছাদীন তহবিলের অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর  ২০ বছর দেশে কোন উন্নয়ন হয় নাই। এজন্য আমাদের অনেক বেগ পেতে হচ্ছে। ওই ২০ বছর নষ্ট না হলে আমরা এখন সিঙ্গাপুর, মালোশিয়া ও আমেরিকার উন্নয়নের সাথে মোকাবেলা করতাম। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল হামিদের সভাপতিত্বে অনুদান বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুর মোরশেদ শাহ চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা রনজিত সরকার, আনোয়ারুল ইসলাম এবং মোফাজ্জল হোসেন।

এসময় খাদ্যমন্ত্রী অসহায় শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা অনুদান, প্রতিবন্ধীদের মাঝে হুইল চেয়ার, দলিত হরিজন সম্প্রদায়ের মাঝে সহায়তা ভাতা বিতরণ করেন ও এলজিডি তত্বাবধায়নে ৫ কোটি ৭২ লাক্ষ টাকা ব্যায়ে পোরশা উপজেলা পরিষদ সম্প্রসারিত অফিস কমপ্লেএক্সের ভবন নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।

এর আগে তিনি সাপাহার উপজেলায় প্রধানমন্ত্রী ত্রান তহবিল থেকে ক্ষুদ্র নৃ-তাত্ত্বিক জনগোষ্ঠির শিক্ষার্থী ছেলেমেয়েদের মাঝে শিক্ষা উপবৃত্তি, শিক্ষা উপকরণ, স্বাস্থ্য উপকরণ ও বাই সাইকেল বিতরণ, উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে প্রায় ৪কোটি ৫৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৪তলা বিশিষ্ট উপজেলা কমপ্লেক্স সম্প্রসারিত প্রশাসনিক ও হলরুম নির্মান কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন এবং শরফতুল্লাহ ফাজিল মাদ্রাসার ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের উদ্বোধন করেন।

এসময় তিনি বলেন, উন্নয়নের ক্ষেত্রে আমাদের পিছিয়ে থাকলে চলবেনা, মানুষে মানুষে কোন ভেদাভেদ নেই, তাই জাতী ধর্ম বর্ণ গোত্র নির্বিশেষে এক যোগে কাধে কাধ মিলিয়ে দেশের জন্য কাজ করে যেতে হবে তাহলেই জাতীর পিতার আত্না শান্তিতে ঘুমাতে পারবে এবং দেশ উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাবে।

মন্তব্য