| প্রচ্ছদ

শেরপুরে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে জমি দখলের চেষ্টা:সংঘর্ষে আহত ১০

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ১০৩ বার। প্রকাশ: ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার বিশালপুর ইউনিয়নের কচুয়াপাড়া গ্রামে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এমনকি ওই বিরোধপুর্ণ জমিতে পানি সেচ দিয়ে জোরপুর্বক পাওয়ার টিলার দিয়ে হাল চাষ করাকে কেন্দ্র করে গত ৬ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে উভয় পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষে মহিলাসহ অন্তত ১০জন আহত হয়েছেন। আহতদের বগুড়ার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় শেরপুর থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ শামিম হোসেন খান নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।


শেরপুর শহরের খন্দকারপাড়ার মৃত: আব্দুল গফুর খান এর ছেলে মো বারিউল খান (৪৫) বাদী হয়ে শেরপুর থানা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কচুয়াপাড়া গ্রামের মৃত শাহজাহান আলী সরকারের ছেলে আবু সায়েম সরকার পারছেনাকে প্রধান আসামী করে মিন্টু সরকার (৪০), খোররুম সরকার (৩৮), জিকু সরকার (৩৫), জাকারিয়া সরকার (৩৬), শাহিন সরকার (৫৫), সাজ্জাদ সরকার (৪০), সাইফুল ইসলাম গেদাল সরকার (৫৫), রতন সরকার,মোঃ হারুনার রশিদ সরকার (৬৫), মোঃ গোলাম ফারুক(২৫)সহ অজ্ঞাতনামা আরও অনুমান ৮০-৯০ জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলার বাদী মোঃ বারিউল খান জানান, মোঃ সাজু খান প্রার্থক হয়ে গত ৩ ফেব্রুয়ারি মোঃ সাইফুল ইসলাম সরকার গংকে কে বিবাদী করে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজি: আদালত বগুড়ায় ফৌঃ কাঃ বিঃ আইনের ১৪৪/১৪৫ ধারার একটি মামলা দায়ের করেন ( যার নং- ৫৫পি/২০ (শের:)।

উক্ত তারিখে বিজ্ঞ আদালত অফিসার ইনচার্জ শেরপুর থানা প্রার্থকের আর্জি বর্ণিত নালিশি সম্পত্তিতে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখবেন বলে আদেশ প্রদান করেন। তৎপর এজাহারকারী ও তার চাচাতো ভাই মোঃ সাজু খান উক্ত সম্পত্তি শান্তিপূর্ণভাবে ভোগদখল করা কালীন সময় গত ৬ ফেব্রæয়ারি বেলা ১১ টার দিকে রনিহালি নামক স্থানে কাচা রাস্তার উপর বাদি ও ভিকটিমগন পৌঁছামাত্র আসামীগন পথরোধ করলে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এতে উভয় পক্ষের মহিলা সহ অন্তত ১০ জন আহত হন।


অপরদিকে কচুয়াপাড়া গ্রামের মৃত শাহজাহান আলী সরকারের ছেলে মো: সাজ্জাত হোসেন সরকার বাদী হয়ে পেচুইল গ্রামের খয়বর হোসেন খানের ছেলে শামীম হোসেন খানকে প্রধান আসামী করে জাহিদুল ইসলাম, মো: মিঠু, মো: ইব্রাহীম হোসেন , মোহাম্মদ আলী, মো: কিবরিয়া,মো: ফারুক হোসেন, মো: সাজু সহ অজ্ঞাতনামা ৮০/১০০ জন কে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আরজীতে বাদী মো: সাজ্জাত হোসেন সরকার বলেন, এজহারনামীয় আসামীগন দলবদ্ধ হয়ে উক্ত সম্পত্তি দখল করার জন্য যাওয়ার পথে এই সংর্ঘষ হয়। এতে তাদের পক্ষের মহিলা সহ ৩/৪ জন আহত হয়েছে। 


এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো: হুমায়ুন কবির বলেন, ঘটনাটি নিয়ে উভয় পক্ষই মামলা দায়ের করেছে। শামীম হোসেন খান নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। উভয় পক্ষের আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে দাবি করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।
 

মন্তব্য