| প্রচ্ছদ

বগুড়া সেন্ট্রাল হাইস্কুলের ১৯৮৯  ব্যাচের পুনর্মিলনী উৎসব

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ১৫১ বার। প্রকাশ: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

এসএসসি পরীক্ষায় বসার ৩০তম বার্ষিকীতে বগুড়া সেন্ট্রাল হাইস্কুলের ১৯৮৯ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা শুক্রবার স্কুল প্রাঙ্গণে পুনর্মিলনী উৎসবের আয়োজন করে। রংধনু’ ৮৯ নামে পরিচিত ১৯৮৯ ব্যাচের ওই পুনর্মিলনী উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন বগুড়া সেন্ট্রাল হাইস্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু। 
দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধন করেন প্রাক্তন শিক্ষার্থী স্থাপত্য অধিদপ্তরের সাবেক প্রধান স্থপতি আহসানুল হক খান স্বপন। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় স্কুল মাঠ থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। তাতে ১৯৮৯ ব্যাচের শিক্ষার্থী এবং তাদের স্ত্রী ও সন্তানরা অংশ গ্রহণ করেন।
’৮৯ ব্যাচের পুনর্মিলনী উদযাপন কমিটির সভাপতি আশেকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বগুড়া সেন্ট্রাল হাইস্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থী জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন, মুক্তিযোদ্ধা বিশিষ্ট অভিনেতা মুক্তিযোদ্ধা আহসানুল হক মিনু ও প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম। অনুষ্ঠানে প্রাক্তন কয়েকজন শিক্ষককে সম্মাননা জানানো হয়। এছাড়া অনুষ্ঠানে ১৯৬২ থেকে ১৯৭৮ ব্যাচের কয়েকজন প্রাক্তন শিক্ষার্থীও বক্তৃতা করেন।
আয়োজক রংধনু’৮৯-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, শুধু আনন্দ-উল্লাস কিংবা স্মৃতিচারণ নয় বরং  শিক্ষা ক্ষেত্রে তাদের অস্বচ্ছল ও মরহুম সহপাঠীদের সন্তানদের পাশে দাঁড়ানোই তাদের মূল্য লক্ষ্য। পাশাপাশি অগ্রজদের সহায়তা পেলে বগুড়া সেন্ট্রাল হাইস্কুলের দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের প্রতিও তারা সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে চান। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ব্যাচের প্রাক্তন কয়েকজন শিক্ষার্থী স্কুল চত্বরে শহীদ মিনার নির্মাণের দাবি জানালে রংধনু’৮৯-এর পক্ষ থেকে সেই দাবির প্রতি সমর্থন জানানো হয়।
প্রধান অতিথি মজিবর রহমান মজনু বগুড়া সেন্ট্রাল হাইস্কুলে খুব শিগগিরই শহীদ মিনার নির্মাণ ও স্কুলটির উন্নয়নে সব ধরনের সহায়দা প্রদানের আশ্বাস দেন। তিনি তরুণদেরকে দুর্নীতি ও মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করে যাওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতি ও মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। আমাদের তরুণ প্রজন্মকে সেই যুদ্ধে শামিল হতে হবে। তবেই আগামীতে বাংলাদেশ তার কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে এগিয়ে যাবে।’ স্থপতি আহসানুল হক খান স্বপন বগুড়া সেন্ট্রাল হাইস্কুলের উন্নয়নে সব ব্যাচের প্রাক্তন শিক্ষার্তীদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।

 

মন্তব্য