| প্রচ্ছদ

মুশফিক-মার্শালের সেঞ্চুরির দিন নাঈমের ৮ উইকেট

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫৭ বার। প্রকাশ: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) তৃতীয় রাউন্ডের প্রথম দিন নাঈম হাসান ৮ উইকেট নিয়েছেন। ফার্স্ট ক্লাসে ইনিংসে এটি তার তৃতীয় ৮ উইকেট। পূর্বাঞ্চলের এই বোলারের তাণ্ডবের দিনে উত্তরাঞ্চলের কেবল মুশফিকুর রহিম বুক চিতিয়ে দাঁড়াতে পেরেছেন। ক্যারিয়ারের একাদশতম ফার্স্ট ক্লাস সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন দেশ সেরা টেস্ট ব্যাটসম্যান। অন্য ম্যাচে ওয়ালটন মধ্যাঞ্চলের হয়ে সেঞ্চুরি পেয়েছেন মার্শাল আইয়ুব।

চার দলের দুটি ম্যাচই হচ্ছে কক্সবাজারে। এর একটিতে শেখ কামাল ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করে প্রথম ইনিংসে ২৭২ করে গুটিয়ে গেছে উত্তরাঞ্চল। সেখানে নাঈমের বোলিং ফিগার ৩৫.৪-৫-১০৭-৮। ২৪ ম্যাচের ক্যারিয়ারে ষষ্ঠবারের মতো হল ইনিংসে ৫ উইকেট পাওয়া।

তার বোলিংয়ের বিপরীতে চাপের মুখে ৪ ঘণ্টার বেশি উইকেটে থেকে ১৫৭ বলে ১৬ চার ও ১ ছক্কায় ১৪০ করেন মুশফিক। শেষ বিকেলে মাত্র ৪.১ ওভার ব্যাট করে ৩ রানের ২ উইকেট খুইয়ে দিন শেষ করে পূর্বাঞ্চল। এখনো পিছিয়ে ২৬৯ রানে।

একাডেমি মাঠেও প্রথমদিন ১২ উইকেট পড়েছে। মধ্যাঞ্চল টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে দক্ষিণাঞ্চলের স্পিনারদের দাপটে ২৩৫ রানে অলআউট হয়েছে প্রথম ইনিংস। ভাঙনের মধ্যে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন মার্শাল আইয়ুব (১১৬)। ১৯ রানে ২ উইকেট হারিয়ে দিন শেষ করা দক্ষিণাঞ্চল এখনো পিছিয়ে ২০৬ রানে।

গেল নভেম্বরে জাতীয় লিগের শেষ দুই ম্যাচেই সেঞ্চুরি হাঁকানো মার্শাল বিসিএলের প্রথম ম্যাচ খেলেননি। দ্বিতীয় ম্যাচে দুই ইনিংস মিলিয়ে করেছিলেন ১২। এবার তুলে নিলেন ফার্স্ট ক্লাসে নিজের ২০তম সেঞ্চুরি।

পাকিস্তানে টেস্ট খেলে আসা সাঈফ হাসান (১) ও নাজমুল হোসেন শান্ত (৮) বিসিএলে নেমেই ব্যর্থ। মধ্যাঞ্চল ৪ উইকেট হারায় ৫৩ রানে। ৫ নম্বরে ব্যাট করা মার্শাল একা লড়ে ১৮৬ বলে ১২ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ১১৬ রান করেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর এসেছে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমানের কাছ থেকে। ১০ নম্বর ব্যাটসম্যান ২৬ বলে ৪ ছক্কা ও ১ চারে ৩০ রানে অপরাজিত থাকেন।

দক্ষিণের মেহেদী হাসান তিনটি এবং আব্দুর রাজ্জাক, নাসুম আহমেদ ও শফিউল ইসলাম দুটি করে উইকেট নেন।

মন্তব্য