| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় বইমেলার ৪র্থ দিনে

কেউ খুশি গল্পে, কেউবা উপন্যাসে

অসীম কুমার কৌশিক
পঠিত হয়েছে বার। প্রকাশ: ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২২:৫৪:৫৫ ।

'গল্প পড়ি জীবন গড়ি' নিবে মামনি? না। তাহলে 'ভূতের গল্প' হাউ, মাউ, খাউ…না, না এটাও নিবো না। এই যে এটা নিবো। ও 'মজার হাসির গল্প'। ঠিক আছে। ভাই এই বইটা দিন তো, বলে মেয়ের মাথায় হাত বুলিয়ে দিলেন এক বাবা। ছোট্ট মেয়ে বুশরা। মজার হাসির গল্প পড়েত বোধহয় বেশ মজা পায়। তাইতো মেয়ের ইচ্ছা অপূর্ণ রাখলেন না বাবা।

ওদিকটায় আবার সৌম্য চন্দ্র নামে আরেক শিশু খুঁজছে ম্যাজিক বই। কিন্তু কিছুতেই খুঁজে পাচ্ছে না। বগুড়া জেলা স্কুলের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র সৌম্য। সে মেলায় এসেছে মায়ের সাথে।

শুধু শিশুরাই নয় বগুড়ায় সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে শহীদ খোকন পার্কে শহীদ মিনারকে কেন্দ করে গড়ে উঠা বইমেলায় তরুণদেরও বেশ আগ্রহ নিয়ে বই কিনতে দেখা যায়। মেলায় আসা নতুন লেখকদের বই কিনছেন তারা।

বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া বইমেলার চতুর্থ দিন রোববার বিকালে বইমেলায় কথা হলো সরকারি আজিজুল হক কলেজে মাস্টার্স পড়ুয়া শিক্ষার্থী ওমর ফারুকের সাথে। বই কিনে বেশ আনন্দের সাথে তিনি বললেন, 'আরিফ আজাদ ও সাদাত হোসেনের লেখা উপন্যাসের বই কিনেছি। যদিও আমার প্রিয় লেখক শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়।' কেন তিনি প্রিয় লেখকের বই কিনলেন না জিজ্ঞেস করতেই বললেন, 'উনার বই আছেই বাসায়। আর সাদাত হোসেনের লেখার মাঝে আমি শরৎচন্দ্রকে খুঁজে পাই।'

এটা গেলো বইমেলার একদিকের চিত্র। অন্যদিকটায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। নবগীতি সংগীত একাডেমীর পরিচালক ওস্তাদ খোদাদাদ খান বাদশার লেখা দেশাত্ববোধক গান মঞ্চে গেয়ে যাচ্ছিলো ক্ষুদে শিল্পীরা। কানে বাজছে দেশের গান, দোকানে সাজানো বই। তাইতো পাঠকরা শত ব্যস্ততাকে উপেক্ষা করে ছুটে এসেছে প্রাণের বইমেলায়।

মেলার আয়োজক কমিটি জানায়, আগামী শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারি বইমেলা শিশুদের জন্য ঘোষণা করা হয়েছে। ছুটির দিনে শিশুরা যেন নিজেদের পছন্দ মতে কেনাকাটা করতে পারে এজন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শিশুরা যাতে এখন থেকেই বইপ্রেমী হয়ে গড়ে উঠতে পারে তাই প্রতিবারের মতো এবারেও থাকছে এই আয়োজন।

রোববারের নির্ধারিত আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন বগুড়া থেকে নতুন একটি দৈনিক উত্তরের দপর্ণ সম্পাদক ও দৈনিক আলো প্রতিদিন পত্রিকার উপদেষ্টা সম্পাদক আব্দুস সালাম বাবু। সভাপতিত্ব করেন জোটের সহ সভাপতি আসাদ হোসেন। বক্তব্য রাখেন জোটের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ সিদ্দিকী, সহ সভাপতি মতিয়ার রহমান, গৌতম কুমার দাস,, সহ সাধারণ সম্পাদক এসএম বেলাল হোসেন, আলমগীর কবির, অর্থ সম্পাদক রবিউল আলম অশ্রু, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলে রাব্বী, দপ্তর সম্পাদক এইচ আলিম, প্রচার সম্পাদক লুবনা জাহান, নির্বাহী সদস্য আসাদুর রহমান খোকন, আব্দুল আউয়াল, জোটের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবিএম জিয়াউল হক বাবলা, নান্দনিক নাট্যদলের সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান চৌধুরী, সিকতা কাজল, এমএ ওয়ারেছ ভুট্ট এবং খোদাদাদ খান বাদশা। শেষে সমাপনী বক্তব্য প্রদান করেন জোটের সভাপতি তৌফিক হাসান ময়না। এদিনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে নবগীতি সঙ্গিত একাডেমী, সুরতীর্থ সংগীত একাডেমী, ফাল্গুনী থিয়েটার।

সোমবার বইমেলাকে ঘিরে যা যা থাকছে
সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবে অনুশীলন ৯৫ সাংস্কৃতিক গোষ্ঠি, নান্দনিক নাট্যদল, কণ্ঠসাধন আবৃত্তি পরিষদ এবং নৃত্যছন্দম আর্টস একাডেমী। এছাড়া অনুষ্ঠানের ফাঁকে নির্ধারিত আলোচনা সভা ও নতুন প্রকাশ পেলে তা মোড়ক উন্মোচন করা হবে।

মন্তব্য