| প্রচ্ছদ

ধর্ষণের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত উইনস্টেইন

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫৪ বার। প্রকাশ: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

'হ্যাশট্যাগ মি টু' আন্দোলন চলাকালে যৌন নির্যাতন ও ধর্ষণে অভিযুক্ত হলিউড প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইন দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। সোমবার আমেরিকার নিউইয়র্কের জুরি বোর্ড তাকে দোষী সাব্যস্ত করেন। একে 'মি টু' আন্দোলনের বড় সাফল্য হিসেবে দেখছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো। খবর বিবিসি ও রয়টার্সের।

হলিউডের প্রভাবশালী প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইন বিরুদ্ধে সাবেক প্রযোজনা সহকারী মিমি হ্যালেইকে যৌন নির্যাতনের ও অভিনেত্রী জেসিকা মানকে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। এ দুই অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন ৬৭ বছর বয়সী এ প্রযোজক। তবে যৌন আঘাতের গুরুতর অভিযোগ থেকে তিনি নিষ্কৃতি পেয়েছেন। এই অভিযোগে দোষী প্রমাণিত হলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হত তার। 

এরপর হার্ভে উইনস্টেইনকে আটক করে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে নেয় কর্তৃপক্ষ। আগামী ১১ মার্চ তার সাজা শোনাবেন নিউইয়র্কের একটি আদালত। ৫ থেকে সর্বোচ্চ ২৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে এই প্রযোজকের।

গত ৬ জানুয়ারি নিউইয়র্কের আদালতে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের বিচার শুরু হয়। সোমবার এর রায় দেন জুরি বোর্ড। ২০০৬ সালে মিমি হ্যালেইকে যৌন নির্যাতন ও জেসিকা মানকে ২০১৩ সালে ধর্ষণের অভিযোগে এ রায় দেওয়ার হলো। 

জোডি ক্যানটর ও মেগান টুহে নামের নিউইয়র্ক টাইমস-এর দুই প্রতিবেদক ২০১৭ সালের ৫ আক্টোবর হার্ভে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলে প্রতিবেদন লেখেন। এর রেশ ধরে 'হ্যাশট্যাগ মি টু' আন্দোলন পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে। 

এরপর উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ যৌন হয়রানির অভিযোগ তোলেন কয়েকজন অভিনেত্রী। তাদের মধ্যে হলিউডের জনপ্রিয় তারকা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও গিনেথ প্যালট্রো, ইতালিয়ান অভিনেত্রী আসিয়া আর্জেন্তোও, নরওয়ের অভিনেত্রী ও মডেল নাতাশিয়া মালথেও রয়েছেন। তারা ওয়েনস্টেইনের বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ যৌন হয়রানির দুই ডজনের বেশি অভিযোগ করেন। যদিও হার্ভে সব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছিলেন।

মন্তব্য