| প্রচ্ছদ

নওগাঁয় বাল্য বিয়ে দেওয়ার অপরাধে পিতার ছয় মাসের কারাদন্ড

নওগাঁ প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৭১ বার। প্রকাশ: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

নওগাঁর ধামইরহাটে বাল্য বিয়ে দেয়ার অপরাধে মেয়ের বাবা মোঃ শরিফ বাবু (৫২) কে ছয় মাসের কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নিবার্হী ম্রাজিষ্ট্রেট গণপতি রায় এই দন্ড প্রদান করেন। দন্ডপ্রাপ্ত আসামী উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নের বীরগ্রাম চৌরাস্তা মোড়ের বাসিন্দা শরিফ। বুধবার সকালে তাকে জেল আজতে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছেন।
জানা গেছে,বীরগ্রাম চৌরাস্তা মোড়ের বাসিন্দা শরিফ বাবুর মেয়ে বীরগ্রাম উচ্চ বিদ্যালযের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী জননী আখতারের সাথে উপজেলার সাতানা শিবপুর গ্রামের মেহেদী হাসানের সাথে বিয়ে ঠিক হয়। গত মঙ্গলবার বিদ্যালয়ে গিয়ে মেয়েটি ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খোরশেদা আখতারকে ঘটনাটি জানায়। প্রধান শিক্ষক তাৎক্ষনিক বিষয়টি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক মাহফুজুর রহমানকে জানান। ওই দিন সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার গনপতি রায় ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মাহফুজুর রহমান পুলিশকে নিয়ে মেয়ের বাড়ীতে ছুটে যান। ঘটনাস্থলে গিয়ে জানতে পারেন গত ২১ ফেব্রুয়ারী  মেয়েটির সাথে সাতানা শিবপুর গ্রামের মেহেদী হাসানের বিয়ের রেজিষ্ট্রি কাজী অফিসে সম্পন্ন হয়েছে। এঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মেয়ের বাবা মো.শরিফ বাবু (৫২) কে আটক করা হয়। ওই রাতে উপজেলা নির্বাহী নির্বাহী অফিসারের ভ্রাম্যমাণ আদালতে মেয়ের বাবা দোষ স্বীকার করলে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এদিকে কাজী অফিসের কাজী মো.ফজলুর রহমান বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।

মন্তব্য