| প্রচ্ছদ

৫০ হাজার টাকা জরিমানা

বগুড়ায় র‍্যাবের অভিযান: ১৬ মাদকসেবীর কারাদন্ড

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ১৭৯ বার। প্রকাশ: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

বগুড়ার আদমদীঘি ও সান্তাহারে র‌্যাব-১২ মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ১৬জন মাদকসেবীকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড ও মেয়াদউত্তীর্ণ ঔষধ রাখার দায়ে এক ব্যবসায়ী ও পল্লী চিকিৎসকের জরিমানা করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট একেএম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ ভ্রাম্যমান আদালতে এই রায় দেন। গত বুধবার বিকেল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত র‌্যাব-১২-এর একটি দল এ অভিযান চালান।
বুুুধবার বিকেলে থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বগুড়ার র‌্যাব-১২-এর সহকারি পুলিশ সুপার রওশন আলীর নেতৃত্বে একটি দল আদমদীঘির নসরতপুর, মুরইল ও সান্তাহার এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান চালান। অভিযানে মাদক সেবনের দায়ে দুপচাঁচিয়ার বাশোপাতা গ্রামের আহসান হাবিব, মেঘা গ্রামের মিরাজুল ইসলাম, আলতাফনগরের মানিক হোসেন, আদমদীঘির ধনতলার ওয়ালুল বিলি, সান্দিড়ার শওকত জামাল, কদমার ইয়াছিন আলী, বশিপুরের আল আমিন, সান্তাহারে বাবলু প্রাং, পোওতার বাপ্পা, কলসার সাব্বাছ আলী, দোগাছির মোফাজ্জল হোসেন, পাথরকুঠার ছায়ফুল ইসলাম, নওগাঁ চন্ডিপুরের উজ্জল হোসেন, জিল্লুর রহামান, দোগাছির সুজন আলী ও বশনা গ্রামের শহিদুল ইসলামকে আটক করেন। এরপর ভ্রাম্যমান আদালত তাদের বিভিন্ন মেয়াদে বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং মুরইল বাজারের ভাই ভাই মেডিক্যাল স্টোরে মেয়াউত্তীর্ণ ঔষধ রাখার দায়ে মালিক আতোয়ার রহমান পলাশের ৪০ হাজার টাকা ও বিধিবহিভুত চিকিৎসা পত্র দেয়ায় পল্লী চিকিৎসক রাখাল চন্দ্রের ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট একেএম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ।

মন্তব্য