| প্রচ্ছদ

চীন ঘুরে এসেই 'করোনা আতঙ্কে' মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪২ বার। প্রকাশ: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ।

প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসের উৎসস্থল চীন ঘুরে এসে কোয়ারেন্টাইনে (পৃথক করে রাখা) রয়েছেন মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট খালতমা বাতুলগা।

ভাইরাস সংক্রমণের ভয়ে বিশ্বের প্রায় সব দেশই যখন চীনকে এড়িয়ে চলছে; তখন একদিনের সফরে ওই দেশ ভ্রমণে যান তিনি। এরপর ফিরে আসলে বৃহস্পতিবার তাকে ১৪ দিনের কোয়েরান্টইনে রাখা হয়েছে বলে সিএনএন জানিয়েছে।

মঙ্গেলিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা বলছে, প্রেসিডেন্টের সঙ্গে এই সফরে সঙ্গী হয়েছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী এবং সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সেখানে তারা চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সফরে বাতুলগার সঙ্গে চীনা প্রেসিডেন্টের করোনার প্রাদুর্ভাব ও এ নিয়ে করনীয় সর্ম্পকে আলোচনার পাশাপাশি বাণিজ্য নিয়েও কথা হয়েছে।

চীন থেকে ফেরার সঙ্গে সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ও অন্য কর্মকর্তাদের নিয়ে যাওয়া হয় কোয়েরান্টেইনে। এছাড়া এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও গ্রহণ করেছে কর্তৃপক্ষ।

সিএনএন জানিয়েছে, বিশ্বের যে সকল দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে; এই তালিকায় এখনও পর্যন্ত নাম আসেনি মঙ্গোলিয়ার। করোনা ঠেকাতে এরই মধ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে দেশটি। এরই অংশ হিসেবে মার্চের শেষ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সমস্ত স্কুল। ১২ মার্চ পর্যন্ত সব কয়লা রফতানি বাতিল করা হয়েছে।

গত ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথম করোনার অস্তিত্ব ধরা পড়ে। এরপর তা ছড়িয়ে পড়েছে ৫০টিরও বেশি দেশে।

সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে ৮৩ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন; আর মৃত্যু হয়েছে ২৮৫০ জনের বেশি মানুষের। এর মধ্যে শুধুমাত্র চীনে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৮ হাজার ৮২৪; মৃত্যু হয়েছে ২৭৮৮ জনের।

খুব দ্রুত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। অর্ধশতাধিক দেশে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাস ঠিক কোন সংকটের দিকে নিয়ে যাচ্ছে তা ভাবিয়ে তুলছে বিশ্বকে।

উহানে সবচেয়ে বেশি করোনার সংক্রমণ ধরা পড়লেও চীনের বাইরেও বেশ কয়েকটি দেশে এর প্রাদুর্ভাব বাড়ছে ক্রমেই। প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত দেশের সংখ্যা।

মন্তব্য