| প্রচ্ছদ

আদমদীঘির লক্ষীপুর পুরাতন গভীর নলকুপের বৈদ্যুতিক সংযোগ স্থাপন

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৬৪ বার। প্রকাশ: ০৫ মার্চ ২০২০ ।

বগুড়ার আদমদীঘির লক্ষীপুর গ্রামের পশ্চিম মাঠে আব্দুল গফুর হাজির মালিকানাধীন পুরাতন গভীর নলকুপের বৈদ্যুতিক সংযোগ অবশেষে আদালতের নির্দেশে প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট একেএম আব্দুল্লাহ বিন রশিদের নেতৃত্বে সান্তাহার বিদ্যুত বিতরণ কেন্দ্রের নির্বাহি প্রকৌশলী রোকুনুজ্জামান, সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার এরশাদ হোসেন, ওসি জালাল উদ্দীন ও র‌্যাব-১২এর সদস্যারা প্রতিপক্ষ শাহিন ও তহিদুলের আগের বৈদ্যুতিক সংযোগ লাইন বিচ্ছিন্ন করে প্রায় ৩ বছর পর পুরাতন এই গভীর নলকুপের সংযোগ পুনঃস্থাপন করেন। 
জানাযায়, আদমদীঘির নসরতপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের গভীর নলকুপের মালিকানা, মসজিদের সম্পত্তির হিসাবসহ আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রায় ২০ বছর যাবত ওই গ্রামে আব্দুল গফুর হাজি ও তহিদুল শাহিন পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে দু‘পক্ষের আদালতে পাল্টাপাল্টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। গ্রামের পশ্চিম মাঠে একটি গভীর নলকপুর মাধ্যমে কৃষকদের সেচ সুবিধা নিশ্চিত করা হতো।  প্রায় ৩ বছর পূর্বে সেই গভীর নলকুপুরে মালিকানা নিয়ে বিরোধ ও উত্তেজনা চলে। ফলে ওই মাঠে আরও একটি গভীর নলকুপ স্থাপন ও বৈদ্যুতিক সংযোগ গ্রহন করে সেচ সুবিধা দেয়া হতো। এদিকে প্রায় ৩ বছর যাবত পুরাতন গভীর নলকুপ সংযোগ বিচ্ছিন্নসহ গভীর নলকুপটি বন্ধ থাকায় আব্দুল গফুর পক্ষ আদালতের শ^রনাপন্ন হন। আদালত সম্প্রতি আব্দুল গফুরের বন্ধ থাকা গভীর নলকুপটিতে বৈদ্যুতিক সংযোগ দেয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করেন। উপজেলা নির্বাহি অফিসার একেএম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ জানান, আদালতের নির্দেশ ক্রামেই বিদ্যুত বিভাগের কর্মকর্তাসহ আইনপ্রযোগকারি সংস্থার উপস্থিতিতে একটি পক্ষের গভীর নলকুপেুর বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে আব্দুল গফুরের পুরাতন গভীর নলকুপে বৈদ্যুতিক সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে।

 

মন্তব্য