| প্রচ্ছদ

ছাইয়ের মধ্যে লুকিয়ে মরদেহ, দিল্লিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৩!

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৭৮ বার। প্রকাশ: ০৬ মার্চ ২০২০ ।

ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) প্রতিবাদে চলমান সহিংসতায় দিল্লিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৩ জনে দাঁড়িয়েছে। সহিংসতা থামলেও এখনও বিভিন্ন জায়গা থেকে উদ্ধার হচ্ছে মরদেহ। বৃহস্পতিবারও দিল্লি থেকে উদ্ধার হয়েছে অজ্ঞাত এক মরদেহ। তদন্তকারীদের ধারণা, আরও বাড়তে পারে মৃতের সংখ্যা।

রবিবার দিল্লিতে সহিংসতার ঘটনায় উদ্ধার হয়েছিল আরও তিনটি মরদেহ। রবিবার গোকুলপুরীর নর্দমা থেকে একটি ও ভাগীরথী খাল থেকে উদ্ধার হয়েছে দুটি দেহ। এরপর আবার বৃহস্পতিবার।

ফলে দিল্লির সহিংসতায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৩। আহত হয়েছেন ৩০০-রও বেশি মানুষ।

বৃহস্পতিবারই গ্রেফতার করা হয়েছে দিল্লিতে আইবি অফিসার হত্যায় অভিযুক্ত বহিষ্কৃত আপ নেতা তাহির হোসেনকে। দিল্লির আদালতে বৃহস্পতিবার তিনি আত্মসমর্পণ করার জন্য আবেদন করেন। তার সেই আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন ভারতের আদালত।

আত্মসমর্পণ করার জন্য দিল্লির আদালতে তাহির হোসেন বৃহস্পতিবার উপস্থিত হলেও তার সেই আবেদন খারিজ হয়ে যায়। তার পরই দিল্লি পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। দিল্লিতে আইবি অফিসার হত্যায় অভিযুক্ত বহিষ্কৃত আপ নেতা তাহির হোসেনের বিরুদ্ধে সংঘর্ষ ও ভাঙচুরের অভিযোগ রয়েছে। যদিও আইবি অফিসার হত্যায় নিজেকে নিরপরাধ বলে দাবি করেছেন তিনি।

উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে ছড়িয়ে পড়া সহিংসতায় মৃত্যু হয় ইনটেলিজেন্স ব্যুরোর অফিসার ২৬ বছরের অংকিত শর্মার। চাঁদবাগের একটি ড্রেন থেকে উদ্ধার হয় তার মৃতদেহ। বহিষ্কৃত আপ কাউন্সিলর তাহির হোসেন জনতাকে তুলে ওই গোয়েন্দা অফিসারকে হত্যা করতে প্ররোচনা দেন বলে তার বাড়ির লোকের অভিযোগ। এই অভিযোগ সামনে আসার পরই দল থেকে বরখাস্ত করা হয় তাহির হোসেনকে।

মন্তব্য