| প্রচ্ছদ

দুবাইতেও রয়েছে শাহরুখের রাজকীয় প্রাসাদ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫৩ বার। প্রকাশ: ১০ মার্চ ২০২০ ।

১৯৯৭ সালে একটি সিনেমার শুটিংয়ে মুম্বাইয়ে ‘মান্নত’ নামের একটি বাড়ির সামনের নেচেছিলেন শাহরুখ খান। গানটা ছিল ‘চাঁদ তারে তোড় লায়ু?’ ‘ইয়েস বস’ নামের সেই সিনেমা করার সময় ‘মান্নত’-এর মালিক কিন্তু তিনি ছিলেন না। শাহরুখ তখন জানতেন না যে, এক দিন এই প্রাসাদই তার হবে। সদিচ্ছা আর কঠোর পরিশ্রমের ফল যে মেলে, তার প্রমাণ, ইন্ডাস্ট্রিতে কোনো ‘গডফাদার’ না থাকা সত্ত্বেও শাহরুখের আজ এই জায়গায় পৌঁছে যাওয়া।

ভোগ ম্যাগাজিনের সৌজন্যে সম্প্রতি মান্নত-এর অন্দরমহলের একটা ঝলক প্রকাশ্যে এসেছে। ‘ভোগ’ গৌরী খানের সঙ্গে মান্নতেই ফটোশুট করেছিল। শাহরুখ খানের জীবনযাত্রা যে কতটা রাজকীয়, তার আঁচ সেই ফটো শুট থেকেই জানা গিয়েছে। তবে, শাহরুখের তো আর একটা প্রাসাদ নয়। দুবাইয়ের পাম জুমেইরাহ-তেও একটা রয়েছে। ‘মান্নত’-এর সঙ্গে মিল রেখেই এই বাড়ির নাম দিয়েছেন ‘জান্নাত’। ২০০৭-এর সেপ্টেম্বরে এই ‘ভিলা’ শাহরুখকে উপহার হিসাবে দিয়েছিলেন দুবাইয়ের এক ব্যবসায়ী নাখীল।

দোতলা এই ভিলা প্রায় ১৪ হাজার বর্গ ফুটজোড়া। তার মধ্যে সাড়ে আট হাজার বর্গ ফুট এলাকা জুড়ে রয়েছে বিলাসবহুল বাড়ি। এই ১৪ হাজার বর্গফুট এলাকায় বাইরের কারও প্রবেশ একেবারেই নিষিদ্ধ। কড়া নিরাপত্তায় মোড়া দিবারাত্রি। এই ভিলার আনুমানিক দাম ১৮ কোটি টাকা।

এই খান-ভিলায় ৬টা বেডরুম রয়েছে। দুটো রিমোট কন্ট্রোলড গ্যারাজ, নিজস্ব সুইমিং পুল তো রয়েছেই, এ ছাড়াও রয়েছে ব্যক্তিগত সমুদ্রসৈকতও। তার রাজকীয়তার ছাপ এতটাই যে, ভিলা না বলে একে প্রাসাদ বলাই শ্রেয়।

সেই সমুদ্রসৈকতে মাছ ধরা এবং নানা বিনোদনের সুবিধা রয়েছে। এই প্রাসাদ থেকে দুবাই স্কাইলাইনও পরিষ্কার ভাবে দেখা যায়। ভিলার কোনো অংশটা শাহরুখ-গৌরীর সবচেয়ে পছন্দের? এক সাক্ষাৎকারে গৌরী জানান, বৈঠকখানার একটা সোফা। সেই সোফায় বসে চায়ের কাপ হাতে বাইরের বাগান আর সমুদ্রের দিকে তাকিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা তারা কাটিয়ে দেন।

তিন সন্তানের পছন্দের অংশ কোনোটা? ওই সাক্ষাৎকারেই গৌরী খান জানিয়েছিলেন, তিন সন্তানের আলাদা আলাদা পছন্দের কথা। আরিয়ান ঘরে বসে ভিডিও গেম খেলতে পছন্দ করে। তাই তার ঘরের দেওয়ালে বড় টিভি লাগানো হয়েছে। বেশির ভাগ সময় সে ঘরেই থাকে।

সুহানা আবার আউটডোর-গার্ল। সারা ক্ষণ বিচে থাকতেই পছন্দ করে। যখনই তারা সপরিবারে দুবাইয়ের ‘জান্নাত’-এ গিয়ে ওঠেন, নিজের ঘরে প্রায় থাকেই না সুহানা। ছোট ছেলে আব্রামও তাই। খুব ছোট তাই বিচেই খেলা করে বেড়ায় সারা ক্ষণ।

শুধু মুম্বাইয়ের বান্দ্রায় ‘মান্নাত’ বা দুবাইয়ের ‘জান্নাত’ নয়, শাহরুখের দিল্লিতেও একটি বাংলো রয়েছে। লন্ডনেও রয়েছে ১৬৭ কোটি টাকার একটি বিলাসবহুল অ্যাপার্টমেন্ট।

মন্তব্য