| প্রচ্ছদ

রান্নার সময় বাড়ল মৃগী রোগ, আগুনে পুড়েই নারীর মৃত্যু

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৩ বার। প্রকাশ: ১১ মার্চ ২০২০ ।

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় রান্না করতে গিয়ে আগুনে পুড়ে হেনা আক্তার নামে (৩৫) এক নারী চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। বুধবার (১১ মার্চ) ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জানা গেছে, উপজেলার কান্দিউড়া ইউনিয়নের দীঘলকুর্শা গ্রামে মঙ্গলবার (১০ মার্চ) সন্ধ্যার পর একা বাড়িতে রান্না করার সময় হঠাৎ মৃগী রোগ দেখা দিলে তিনি চুলার আগুনে পড়ে যান। এতে তার শরীরের বেশির ভাগ আগুনে দগ্ধ হয়। পরে পরিবারের সদস্যরা আশপাশের সহায়তায় প্রথমে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। রাতেই তাকে আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরবর্তীতে ভোরে ঢাকা মেডিকেলের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হেনার আত্মীয় মনি আক্তার ও হাসনা আক্তার জানান, তার তিনটি সন্তান রয়েছে। কিন্তু জন্ম থেকেই তিনি মৃগী রোগে আক্রান্ত ছিলেন। তার স্বামী সেলিম মিয়া ঢাকায় চাকরি করেন। বাড়িতে বাচ্চাদের নিয়ে একাই থাকতেন হেনা। রাতে রান্না করার সময় হঠাৎ মৃগী রোগ বেড়ে গিয়ে চুলার ওপর পড়ে যান। এতে মারাত্মক দগ্ধ হন তিনি।

এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রাশেদুজ্জামান বলেন, তার পরিবারের লোকজন মারফত জেনেছি উনি মৃগী রোগী ছিলেন। ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায়ে ভোরে তার মৃত্যু হয়।

মন্তব্য