| প্রচ্ছদ

মুখ্যমন্ত্রী হতে চাই না, পরিবর্তন চাই: রজনীকান্ত

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫৮ বার। প্রকাশ: ১২ মার্চ ২০২০ ।

তামিলনাড়ুতে বিধানসভা নির্বাচন আগামী বছর। তার আগে রাজনীতিতে নিজের অবস্থান সম্পর্কে স্পষ্ট ব্যখা দিলেন তামিল সুপারস্টার রজনীকান্ত। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, কোনওভাবেই তিনি মুখ্যমন্ত্রী পদে প্রার্থী হতে চান না, বরং পেছন থেকেই দলের ভাল-মন্দের দেখভাল করবেন। 

দুই বছর আগে সক্রিয় রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন থ্যালাইভা। যদিও এখনও পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক ভাবে নিজের দলের নাম ঘোষণা করেননি। সূত্রের খবর, খুব শিগগির তিনি দলের নাম ঘোষণা করতে পারেন। রাজনীতিতে এলে তিনি যে মুখ্যমন্ত্রী হবেন, সে নিয়ে ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হয়েছে। ২০২১ সালেই তামিলনাড়ুতে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগেই তাই তিনি রাজনীতিতে নিজের অবস্থানটা স্পষ্ট করে দিলেন। খবর ইন্ডিয়া টুডের

বৃহস্পতিবার তামিলনাড়ুর একটি পাঁচতারা হোটেলে অনুষ্ঠিত ওই সংবাদ সম্মেলনে ৬৯ বছর বয়সী রজনীকান্ত আরও বলেন, 'আমি কখনও মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার কথা ভাবিনি। আমি শুধু রাজনীতিতে পরিবর্তন চেয়েছি; যদি এখন পরিবর্তন না আসে, তাহলে তা আর কোনওদিনই আসবে না।' পাশাপাশি তিনি এও জানান, কোনও প্রকৃত শিক্ষিত এবং অন্যদের প্রতি সংবেদনশীল তরুণকেই তিনি মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চান।

২০২১ সালে তামিলনাড়ুতে বিধানসভা নির্বাচন। এই প্রথম করুণানিধি এবং জয়ললিতার ছত্রছায়া ছাড়াই ভোট হবে তামিলনাড়ুতে। জয়ললিতার মৃত্যুর পর, পন্নিরসেলভমের সঙ্গে দীর্ঘ দিনের বিরোধ মিটিয়ে তামিলনাড়ুতে সরকার গড়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী ই পলানিস্বামী। মুখ্যমন্ত্রী ই পলানিস্বামীর সামনে তাই এটাই হবে অ্যাসিড টেস্ট। তার মধ্যে গত নভেম্বরেই রজনীকান্ত এবং কমল হাসন রাজনীতিতে একসঙ্গে হাত মেলানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন।

রজনীকান্তের সক্রিয় রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার খবর পুরনো। ২০১৭ সালে নিজেই রাজনীতিতে পা রাখার কথা ঘোষণা করেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত নিজের দল গঠন করেননি বা করে উঠতে পারেননি। অন্যদিকে ২০১৮ সালে নিজের দল মক্কল নিধি মইয়ম (এমএনএম)-এর প্রতিষ্ঠা করেন কমল হাসন। ২০১৯-এ লোকসভা নির্বাচনেও অংশ নেয় তার দল। তাতে অবশ্য মাত্র ২ শতাংশ ভোট পেয়েছিল এমএনএম। একটা আসনও জেতেনি। তাই ২০২১-এ তামিলনাড়ুর বিধানসভা নির্বাচনের আগে রজনীর সঙ্গে তার জোট বাঁধা নিয়েও জল্পনা তুঙ্গে।

মন্তব্য