| প্রচ্ছদ

করোনা নিয়ে বাগযুদ্ধ তীব্র, আমেরিকার জবাব চাইল চিন

পুন্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৭৬ বার। প্রকাশ: ১৩ মার্চ ২০২০ ।

বিশ্ব জুড়ে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের আতঙ্ক তীব্র হয়ে ওঠার জেরে এ বার কূটনৈতিক বাগযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ল বিশ্বের দুই মহাশক্তিধর দেশ, চিন ও আমেরিকা। আমেরিকার অভিযোগ ছিল, এই ভাইরাস চিনের উহান প্রদেশ থেকেই সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে। চিন সেই অভিযোগ ওড়াতে গিয়ে বলল, মার্কিন সেনারাও করোনাভাইরাস নিয়ে আসতে পারে উহানে। এ ব্যাপারে আমেরিকার জবাবদিহিও চেয়েছে চিনের বিদেশমন্ত্রক। করোনাভাইরাসকে ‘উহান ভাইরাস’ নাম দেওয়ায় চিনা বিদেশমন্ত্রক রীতিমতো ক্ষুব্ধ। মন্ত্রকের তরফে এই নামকরণকে ‘ঘৃণ্য’ ও ‘অপমানজনক’ বলে নিন্দা করা হয়েছে। ফলে, বাণিজ্য যুদ্ধের পর করোনাভাইরাস নিয়ে এ বার চিন ও আমেরিকার মধ্যে কূটনৈতিক বাগযুদ্ধ ক্রমেই জোরালো হচ্ছে।

শুক্রবার চিনা বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ানের টুইটে অভিযোগ করা হয়েছে, ‘‘মার্কিন সেনারাও উহানে করোনাভাইরাস এনে থাকতে পারে। এ ব্যাপারে মানুষকে সব তথ্য জানানো উচিত।’’ ঝাও তাঁর টুইটে জানিয়েছেন, আমেরিকায় প্রায় সাড়ে তিন কোটি মানুষ ফ্লু-তে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ২০ হাজার মানুষের। মার্কিন কংগ্রেসে আমেরিকার সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের প্রধান রবার্ট রেডফিল্ড জানিয়েছেন, যে মার্কিন নাগরিকদের ফ্লু-তে মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে সন্দেহ করা হয়েছিল, পরে দেখা গিয়েছে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে। তাই ঝাওয়ের দাবি, আমেরিকাকেই এ ব্যাপারে জবাবদিহি করতে হবে।

তবে করোনাভাইরাস চিনে আনার জন্য কেন তিনি মার্কিন সেনাদের দায়ী করছেন, তাঁর টুইটে তার স্পষ্ট কোনও কারণ জানাননি ঝাও। চিনে এই ভাইরাস ছড়ানোর জন্য আমেরিকাকে দায়ী করে অবশ্য ইতিমধ্যেই তুমুল আলোচনা চলছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

মন্তব্য