| প্রচ্ছদ

প্রেমিকার উপবৃত্তির টাকায় বিষ কিনে প্রেমিকযুগলের আত্মহত্যা

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১৪৬ বার। প্রকাশ: ১৪ মার্চ ২০২০ ।

পরিবার থেকে বিয়ে দিতে রাজি না হওয়ায় বরিশালের আগৈলঝাড়ায় প্রেমিকের উপবৃত্তির টাকায় বিষ কিনে পান করে প্রেমিকযুগল। এতে হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রেমিক-প্রেমিকা দু'জনের মৃত্যু হয়। 

বিষ পানের চারদিন পর বৃহস্পতিবার রাতে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় প্রেমিকা পূজা বৈরাগী (১৪)। আর শনিবার বেলা ১১টায় শহরের রাহাত আনোয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় প্রেমিক প্রকাশ বিশ্বাসের। খবর সমকাল অনলাইন 

পূজা উপজেলার রত্নপুর ইউনিয়নের মোহনকাঠী গ্রামের হীরা লাল বৈরাগীর মেয়ে ও মোহনকাঠী স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী। প্রকাশ উপজেলার রত্নপুর ইউনিয়নের বারপাইকা গ্রামের পরিমল বিশ্বাসের ছেলে। 

হাসপাতালে ভর্তি করার পর প্রকাশ বৃহস্পতিবার রাতে বলেন, পূজার সঙ্গে আমার কয়েক বছরের প্রেমের সম্পর্ক। সম্প্রতি পূজা আমাকে বিয়ের জন্য চাপ দিচ্ছিল। কিন্তু বয়সের কারণে দুই পরিবার বিয়েতে রাজি হয়নি। সর্বশেষ গত ৯ মার্চ পূজা স্কুল থেকে উপবৃত্তির টাকা উত্তোলন করে। এরপর আমাকে বিয়ে করতে বলে। কিন্তু পূজার বয়স কম হওয়ায় আমি রাজি হইনি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পূজা উপবৃত্তির টাকা দিয়ে বিষ কেনে। এরপর আমরা দু'জন বরিশালের উজিরপুর উপজেলার ভাউধর গ্রামে আমার মামা নিহার বাড়ৈর বাড়িতে যাই। সেখানে বেলা দেড়টার দিকে প্রথমে পূজা ও পরে আমি বিষপান করি। মামা বাড়ির লোকজন আমাদের উদ্ধার করে আগৈলঝাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে। 

শেরেবাংলা মেডিকেলের দায়িত্বরত এসআই নাজমুল হুদা বলেন, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় পূজা। অবস্থার অবনতির হলে প্রেমিক প্রকাশকে রাহাত আনোয়ার হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার বেলা ১১টার দিকে মারা যায় প্রকাশ। তাদের লাশ মর্গে রাখা হয়েছে। 

আগৈলঝাড়া হাসপাতালের চিকিৎসক ও হাসপাতাল প্রধান ডা. বখতিয়ার আল মামুন জানান, প্রকাশ ও পূজার অবস্থার অবনতি হওয়ায় বৃহস্পতিবার তাদের শেরেবাংলা হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মন্তব্য