| প্রচ্ছদ

স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা জানালেন তিনি সুস্থ আছেন

ইতালি ফেরত এক যুবককে নিয়ে বগুড়ার চেলোপাড়ায় আতঙ্ক-উত্তেজনা

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ২২২ বার। প্রকাশ: ১৭ মার্চ ২০২০ ।

বগুড়ায় ইতালি ফেরত এক যুবককে  নিয়ে মঙ্গলবার সকালে বগুড়া শহরের চেলোপাড়া এলাকায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। করোনায় আক্রান্ত কি’না-এলাকাবাসীর এমন সন্দেহ থেকে সৃষ্ট উত্তেজনা দূর করতে পরে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা সেখানে ছুটে যান। তারা নিজ বাড়িতে অবস্থানরত ২৭ বছর বয়সী ওই যুবককে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পদ্ধতিগুলো শিখিয়ে দেন। 
বগুড়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সামির হোসেন মিশু জানিয়েছেন, ওই যুবক পুরোপরি সুস্থ আছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের কর্মীরা ওই যুবক এবং তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছেন। শারীরিকভাবে তিনি সুস্থ আছেন। তবে যেহেতু বিদেশ থেকে ফেরার ১৪দিন অতিক্রান্ত হয়নি সেজন্য তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পদ্ধতিগুলো শিখিয়ে দেওয়া হয়েছে।’
বগুড়া পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পরিমল কুমার জানান, ওই যুবক গত ১৪ মার্চ ইতালি থেকে ঢাকায় আসেন। পরদিন ১৫ মার্চ দিবাগত গভীর রাতে তিনি বাড়িতে আসেন। যুবকটি তার পর থেকে বাড়িতে অবস্থান করলেও তাকে নিয়ে এলাকাবাসীর কানাঘুষা শুরু হয়। কেউ কেউ অভিযোগ করেন যে যুবকটি ঢাকার হজ্ব ক্যাম্প থেকে পালিয়ে এসেছেন।  এমন পরিস্থিতিতে ১৬ মার্চ সোমবার রাতে তার বাড়িতে গিয়ে ওই যুবক এবং তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলি। যুবকটি নামাজের জন্য মসজিদে যেতে চাইলে আমি ১৪দিন অতিক্রান্ত না হওয়া পর্যন্ত তাকে বাড়িতেই নামাজ পড়তে অনুরোধ করি। পরিমল কুমার বলেন, ‘আজ (মঙ্গলবার) সকালে হঠাৎ করেই এলাকাবাসীর মধ্যে ওই ছেলেকে নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। কোন পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই কেন বাড়িতে অবস্থান করছে সে ব্যাপারে প্রশ্ন তুললে এলাকাবাসীর সঙ্গে ওই যুবকের পরিবারের সদস্যদের কিছু বাদানুবাদ হয়। বিষয়টি জানার পর পরই আমি পুলিশ এবং স্বাস্থ্য বিভাগে ফোন করি।’
বগুড়া সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা কার্যালয়ের সেনেটারি ইন্সপেক্টর ভূপেন্দ্রনাথ রায় জানান, খবর পেয়ে তিনি তার অপর দুই সহকর্মীকে নিয়ে ওই যুবকের বাড়িতে যান। তিনি বলেন, ‘আমরা যুবককে প্রাথমিকভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছি। তিনি সুস্থ রয়েছেন। আমরা তাকে দেশে আসার ১৪দিন পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলেছি। এতে এলাকাবাসীও শান্ত হয়েছেন।’
বগুড়া সদর থানার ওসি এস এম বদিউজ্জামান জানান, তিনি ওই যুবকের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘যুবকটি ইতালি থেকে এসেছে জানি। কিন্তু সে হজ্ব ক্যাম্প থেকে পালিয়ে এসেছে এমন কোন তথ্য আমাদের কাছে নেই।’

 

মন্তব্য