| প্রচ্ছদ

করোনার লক্ষণ আছে শুনেই হাসপাতাল থেকে পালিয়েছেন রোগী

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৯ বার। প্রকাশ: ১৯ মার্চ ২০২০ ।

শরীরে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণের লক্ষণ আছে শুনেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতাল থেকে পালিয়েছেন এক ব্যক্তি।

নাসিরনগর উপজেলার ওই ব্যক্তি বুধবার হাসপাতাল থেকে পালিয়ে গেছেন; তাকে খুঁজতে তার বাড়ি গেছে হাসপাতালের একটি টিম।

জানা গেছে, নিউমনিয়ার লক্ষণ জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে ৩০ বছর বয়সী কাতারপ্রাবাসী ওই ব্যক্তি বুধবার চিকিৎসা নিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে যান।

জ্বর, সর্দি-কাশি ও শ্বাসকষ্টের সমস্যা থাকায় তার শরীরে করোনা সংক্রমণ হতে পারে বলে সন্দেহ করেন ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক এবিএম মুসা চৌধুরী। তিনি তাকে মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি হতে বলেন।

এ বিষয়টি ওই রোগীকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বোঝানোর চেষ্টা করার আগ মুহূর্তে করোনা সন্দেহে ভয়ে চিকিৎসা না নিয়েই তার সঙ্গে আসা লোকদেরকে নিয়ে তিনি পালিয়ে যান।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. শওকত হোসেন বলেন, বুধবার দুপুরের দিকে গায়ে জ্বর নিয়ে হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে আসেন ওই যুবক। কিন্তু চিকিৎসা না নিয়েই পালিয়ে গেছেন তিনি।

নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. অভিজিৎ রায় বলেন, আমরা বিষয়টি সকালে নিশ্চিত হয়েছি। রোগীর বাড়িতে একটি টিম পাঠিয়েছি।

মন্তব্য