| প্রচ্ছদ

এবার বিমানের ব্যাংকক ফ্লাইট অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত

পুন্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৯ বার। প্রকাশ: ২১ মার্চ ২০২০ ।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে এবার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ব্যাংকক ফ্লাইট শুক্রবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। বিমানের জনসংযোগ বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক তাহেরা খন্দকার গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান। খবর দেশ রুপান্তর

করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ার পর বাংলাদেশ বিমান ১৭টি রুটের মধ্যে ১৫টি স্থগিত ঘোষণা করেছে। এখন শুধুমাত্র যুক্তরাজ্যের লন্ডন ও ম্যানচেস্টার শহরে বিমান ফ্লাইট পরিচালনা করছে। বিমান সূত্র জানায়, গত দেড় মাসে জাতীয় সংস্থাটি প্রায় ৩০০ কোটি টাকা লোকসান দিয়েছে।

করোনার প্রকোপে আবুধাবি ও দুবাই রুটে গত বৃহস্পতিবার থেকে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত সব ধরনের ফ্লাইট বাতিল করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রবেশের ভিসা বাতিল ও বন্ধ হওয়ার প্রেক্ষিতে এ সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। এর আগে ১৭ মার্চ মালয়েশিয়াকে ‘লকডাউন’ ঘোষণা করা হলে কুয়ালালামপুর রুটের ফ্লাইট বাতিল করে সংস্থাটি। এছাড়া গত ১৩ মার্চ থেকে আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ভারত অভিমুখী সকল ফ্লাইট বাতিল করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস, ইউএস-বাংলা ও নভোএয়ার। এদিকে করোনার বিস্তারে গত বৃহস্পতিবার থেকে অভ্যন্তরীণ রুটেও ফ্লাইট চলাচল সীমিত করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস।

গত পাঁচ দিনে সাত হাজার যাত্রী বিদেশ থেকে বাংলাদেশে এসেছেন বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এএইচএম তৌহিদ-উল আহসান জানান, বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন বিভাগের তথ্য অনুযায়ী গত পাঁচ দিনে গড়ে সাত হাজার যাত্রী বাংলাদেশে এসেছেন। এদের মধ্যে ৮০ শতাংশই বাংলাদেশি।

তিনি আরও জানান, শরীরে তাপমাত্রা বেশি থাকায় গত ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার থেকে শুক্রবার) হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে তিন প্রবাসী বাংলাদেশিকে বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে দুজন সৌদি আরব ও একজন মালয়েশিয়া থেকে এসেছেন।

তবে, ‘যাত্রী নামলে সেনা তত্ত্বাবধানে চলে যাবে’ এ ধরনের কোনো নির্দেশনা সিভিল অ্যাভিয়েশন কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছেনি জানিয়ে তৌহিদ উল আহসান বলেন, বিমানবন্দরের ভেতর থেকে নয়, যদি তারা আসে, যাত্রী নিতে চায় তাহলে বাইরে থেকে নিয়ে যাবেন।

মন্তব্য